সৌদির হাইলাইন ডিফেন্সের ফাঁদে আর্জেন্টিনা

প্রকাশিত: নভেম্বর ২৩, ২০২২, ০৩:০৮ দুপুর
আপডেট: নভেম্বর ২৩, ২০২২, ০৩:০৮ দুপুর
আমাদেরকে ফলো করুন

স্পোর্টস ডেস্ক : কাতার বিশ্বকাপের বড় অঘটন ঘটিয়ে দিয়েছে সৌদি আরব! মঙ্গলবার লুসাইল স্টেডিয়ামে দু’বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনাকে ২-১ গোলে হারিয়ে সবাইকে চমকে দিয়েছে তারা। যদিও ১২ মিনিটের ব্যবধানে তিন বার সৌদি আরবের জালে বল ঢুকিয়েছিলেন মেসিরা। কিন্তু সবগুলো গোলই বাতিল হয়ে যায়। কারণ অফসাইডের ফাঁদে পা দিয়েছেন স্ট্রাইকাররা।

নিজেদের প্রথম ম্যাচে ১০টি অফসাইড করেছে আর্জেন্টিনা। চার বছর আগে রাশিয়া বিশ্বকাপে পুরো প্রতিযোগিতায় ছয় বার অফসাইডের জালে জড়িয়েছিলেন মেসিরা। 

সাড়ে তিন বছরে টানা ৩৬ ম্যাচ অপরাজিত থেকে কাতারে পা রেখেছিল আর্জেন্টিনা। এবারের বিশ্বকাপের ফেভারিট দলগুলোর একটি তারা। তাই শক্তিশালী আর্জেন্টিনার বিপক্ষে পেরে ওঠার জন্য ‘আউট অব দ্য বক্স’ কিছু করতেই হতো। আর সেটা বেশ দারুণ ভাবেই প্রথমার্ধে করতে পেরেছে সৌদি আরব। হাইলাইন ডিফেন্সকে তারা নিয়ে গেছে একদম শিল্পের পর্যায়ে। বিষয়টা আর্জেন্টিনার জন্য হতাশার হলেও এটা সৌদি আরবের কৌশলগত সিদ্ধান্ত।

হাইলাইন ডিফেন্স কী?
সহজ ভাষায় মাঝ মাঠের সাথে রক্ষণ ভাগের দূরত্ব কমিয়ে পজিশন নেওয়া। এর ফলে আক্রমণভাগের খেলোয়াড়রা অফ সাইড ট্র্যাপের ভয়ে সহজে সামনে এগোতে পারে না। তারা বাধ্য হয়ে মাঝমাঠেই ঘোরাফেরা করেন।

সৌদি আরবের বিপক্ষে ম্যাচের ৪০ মিনিটের ভেতরই সাতবার অফসাইড করে বসে আর্জেন্টিনা। বিশ্বকাপের প্রথমার্ধে এটা দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। ২০০২ সালে স্পেনের ছিল নয়টি। এই সাতবারের মধ্যে তিনবারই গোল পেয়েছিল আর্জেন্টিনা। একবার লিওনেল মেসি, আর দু’বার লাউতারো মার্টিনেজ লক্ষ্যভেদ করেন। কিন্তু, সেই লক্ষ্যভেদের কোনো ফল আসেনি। বরং এই অ্যাপ্রোচে আর্জেন্টাইনদের খেলাই এলোমেলো হয়ে যায়।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়