ইমরান খানও মন গলাতে পারলেন না নিউজিল্যান্ডের

Online Desk Saju Online Desk Saju
প্রকাশিত: ০৭:১৫ পিএম, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১

পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে এই মুহূর্তে মাঠে থাকার কথা ছিল পাকিস্তান ও নিউজিল্যান্ডের ক্রিকেটারদের। কিন্তু বিধিবাম! খেলা তো গড়ায়নি বরং সিরিজই বাতিল হয়ে গেছে। নিরাপত্তাজনিত কারণে খেলা শুরুর ঠিক আগ মুহূর্তে সিরিজ বাতিলের ঘোষণা আসে। তবে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপেও সিরিজ বাঁচানো যায়নি।

এই সিরিজের বিষয়ে আশ্বস্ত করতে পারেননি স্বয়ং পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জাচিন্দা আরডার্নের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলেন ইমরান খান। এ সময় তিনি আশ্বস্ত করেন, বিশ্বের অন্যতম সেরা নিরাপত্তা আছে পাকিস্তানের, সফরকারী দলের জন্য কোনো কিছুর শঙ্কাই নেই। কিন্তু তাতে মন গলেনি নিউজিল্যান্ডের। শেষ পর্যন্ত পাকিস্তান সফর বাতিলই করেছে দলটি।


সফর বাতিলের প্রসঙ্গে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড এক বিবৃতিতে বলেছে, ‌'পাকিস্তানে থাকা অবস্থায় নিউজিল্যান্ডের ওপর হুমকি এসেছে এবং নিরাপত্তাজনিত কারণে আমরা সিরিজটি স্থগিত করে দেশে ফিরে যাচ্ছি। আমাদের নিরাপত্তা উপদেষ্টা জানিয়েছে ব্ল্যাক ক্যাপসরা এই সিরিজটি আর খেলবে না।'

তবে এর আগে পাকিস্তানের পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ চেষ্টা করা হয়েছে সিরিজটা মাঠে গড়ানোর। সিরিজ শুরুর ঠিক আগ মুহূর্তে নিউজিল্যান্ডের এমন সিদ্ধান্তে বিস্মিত হয়েছে পিসিবি।

পিসিবি'র পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়, ‌'সফরকারি দলের জন্য সবধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা দিয়ে থাকে পাকিস্তান। নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলের জন্যও সেই ব্যবস্থাই রেখেছি। প্রধানমন্ত্রী ব্যক্তিগতভাবে নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেছেন এবং জানিয়েছেন, আমাদের গোয়েন্দা বিভাগ বিশ্বের অন্যতম সেরা। সফরকারি দলের জন্য কোনো ধরনের নিরাপত্তা শঙ্কা নেই।‌'

এদিকে প্রথম ম্যাচের টসের ঠিক আগ মুহূর্তে করোনায় আক্রান্ত হন নিউজিল্যান্ডের তিন ক্রিকেটার। ফলে ম্যাচ নিয়ে দেখা দেয় অনিশ্চয়তা।

প্রায় ১৮ বছর পর পাকিস্তানে কোনো সিরিজ খেলতে যায় নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দল। নিরাপত্তা ইস্যুতে দীর্ঘসময় পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়নি। তাই দেশের মাটিতে যে কোনো সিরিজকে বেশ গুরুত্বের সঙ্গে নেয় পিসিবি। নিউজিল্যান্ড সবশেষ পাকিস্তানে সিরিজ খেলেছিল ২০০৩ সালের ডিসেম্বরে।

এর আগে এই সিরিজে ২০ শতাংশ দর্শক মাঠে প্রবেশের অনুমতি দিয়েছিল পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। করোনার বৈশ্বিক সংক্রমণের পর এবারই প্রথম মাঠে বসে খেলা দেখার সুযোগ ছিল পাকিস্তানের দর্শকদের। তবে শেষ পর্যন্ত হতাশ হতে হলো সমর্থকদের।