নন্দীগ্রামে স্কুলছাত্র সাব্বির এখন মাছ বিক্রেতা

Staff Reporter Staff Reporter
প্রকাশিত: ০৮:৪৬ পিএম, ২৯ জুন ২০২০

নন্দীগ্রাম (বগুড়া)প্রতিনিধি : করোনার সংক্রমণ রোধে বন্ধ রয়েছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। বিভিন্ন গ্রামের নি¤œ আয়ের অনেক মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়েছেন। অনেকের ঘরে দেখা দিয়েছে অভাব। এ অবস্থায় সংসারের হাল ধরলো বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলার বুড়ইল উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণীর ছাত্র সাব্বির হোসেন (১৩)। করোনায় প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় সংসারের অভাব মেটাতে পতিত আবাদি জমির মাঠ থেকে দেশীয় প্রজাতির মাছ ধরে স্থানীয় বাজারে বিক্রি করছে এই স্কুলছাত্র। গত রোববার বিকেলে বুড়ইল ইউনিয়নের ভদ্রদিঘী চারমাথা বাজারে গিয়ে দেখা গেছে, স্কুলছাত্র সাব্বির হোসেন মাছ বিক্রি করছে। দুই পাতিলে দুই কেজি কই মাছ। মাছ বিক্রির টাকা তুলে দেয় বাবার হাতে। গ্রামের বাজার হলেও ভদ্রদিঘী চারমাথায় মাছের বাজার নেই। বৃষ্টির সময় এলেই মাঠের মাছ বাজারে আসে। বুড়ইল গ্রামের দিনমজুর বাবু মিয়ার ছেলে সাব্বির হোসেন পড়াশোনায় বেশ মনোযোগী। স্কুলছাত্র সাব্বির জানায়, আমি অভাবী ঘরের ছেলে। আমার বাবা একজন দিনমজুর। ধান রোপণ থেকে কাটা-মাড়াই এবং অন্যের জমিতে দিন চুক্তিতে কাজ করে। সেই টাকায় আমাদের সংসার চালায়। এখন তো অনেক জমি পতিত পড়ে আছে। বাবার তেমন ইনকাম নেই। করোনা ভাইরাসের কারণে স্কুল বন্ধ, তাই সংসারের হাল ধরার চেষ্টা করছি।