সাফারি পার্কে ফের ৫ উটপাখির ছানার জন্ম

Staff Reporter Staff Reporter
প্রকাশিত: ০৯:৫২ এএম, ১৫ জানুয়ারি ২০২১

সোহাগ (শ্রীপুর) প্রতিনিধি : করোনাকালে দীর্ঘ সময় সাফারি পার্ক বন্ধ রাখা হয়েছিল। আবার খুলে দেওয়া হয়েছে সাফারি পার্ক। এবার বালুময় বিস্তীর্ণ মরুভূমি অঞ্চলের প্রাণী উটপাখির ডিম থেকে প্রাকৃতিক পরিবেশে পাঁচটি ছানা ফুটল উট পাখির বেষ্টটিতে। গত তিন দিনে এ বাচ্চাগুলোর জন্ম হয়। এ নিয়ে পার্কে আনন্দের হইচই পড়ে গেছে। এবারই সব চেয়ে বেশি উটপাখি ছানার জন্ম হলো। কদিন আগে ইনকিউভেটরের মাধ্যমে চারটি ছানা ফোটেছিল। ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তবিবুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেন। এর আগেও পার্কে প্রাকৃতিক পরিবেশে দুইবার উটপাখির বাচ্চা ফুটেছিল।

ওয়াইল্ড লাইফ সুপারভাইজার মোঃ আনিসুর রহমান জানান, সমতলে বসবাস করা আকারে সবচেয়ে বড় হলো উটপাখি। উটপাখি ক্যাভটিভে (আবদ্ধস্থান) ৬০ বছর বেঁচে থাকে পারে। অপর দিকে প্রকৃতিতে ৪০-৪৫ বছর বাঁচে। এদের ওজন প্রায় ৬৩ কেজি থেকে ১৪৫ কেজি পর্যন্ত হয়ে থাকে। তবে এভারেজ পুরুষের ওজন ১১৫ কেজি ও নারীর ওজন ১০০ কেজি হয়। উটপাখি লম্বা পায়ে ঘন্টায় ৭০ কিমি গতিতে দৌঁড়াতে পারে। তিনি বলেন, এবার উটপাখির ৯টি বাচ্চার জন্ম হলো। প্রাকৃতিক পরিবেশে ৫টি আর ইনকিউভেটরের মাধ্যমে ৪টি ছানার জন্ম হলো। এবারই সব চেয়ে বেশি উটপাখির ছানা পাওয়া গেল এক সাথে পাশাপাশি সময়ে।

সাফারি পার্কের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (সহকারী বনসংরক্ষক) মো. তবিবুর রহমান বলেন, পার্কের উটপাখিগুলো সব সময় ব্রিডিং করে। সময় মত পর্যাপ্ত ডিমও দেয়। কিন্তু বাচ্চা ফুটত না নিয়মিত। তবে এবার ভিন্নতা দেখা গেল। ইনকিউভেটরের পাশাপাশি প্রাকৃতিক পরিবেশেও পাঁচটি বাচ্চার জন্ম হলো। এ সাফল্য আমাদের সকলের প্রচেষ্টার ফসল। তিনি জানান, বাচ্চাসহ মোট পনেরটি উটপাখি আছে পার্কে।