যথাযথ ধর্মীয় মর্যাদায় জুমাতুল বিদা পালিত

Online Desk Saju Online Desk Saju
প্রকাশিত: ০৩:১০ পিএম, ২২ মে ২০২০

 যথাযথ ধর্মীয় মর্যাদা ও নিষ্ঠার সঙ্গে দেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা রমজান মাসের শেষ শুক্রবার জুমাতুল বিদা পালন করেছেন। দিনটি উপলক্ষে বিপুল সংখ্যক রোজাদার মুসল্লি দেশের বিভিন্ন মসজিদে জুমার নামাজ আদায় করেন।


শুক্রবার (২২ মে) রমজানের শেষ জুমায় দেশব্যাপী মসজিদে মসজিদে বিপুল সংখ্যক মুসল্লি নামাজ আদায় ও দোয়ায় শরিক হওয়ার মধ্য দিয়ে জুমাতুল বিদা পালন করেছেন। এ দিন জুমার নামাজ শেষে মহান আল্লাহর দরবারে ক্ষমা ও রহমত কামনা করেছেন তারা।

জুমাতুল বিদার মধ্য দিয়ে পবিত্র মাহে রমজানকে এক বছরের জন্য বিদায় সম্ভাষণ জানানো হয়। জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমসহ দেশের সব মসজিদে জুমাতুল বিদায় অংশ নেন মুসল্লিরা। নামাজ শেষে দেশ ও জাতির কল্যাণে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। পবিত্র জুমাতুল বিদা উপলক্ষে অনেকেই জুমার নামাজে হাজির হয়ে আল্লাহর কাছে ক্ষমা ও রহমত কামনা করেন।

রমজান মাসের সর্বোত্তম রজনী লাইলাতুল কদর আর সর্বোত্তম দিবস জুমাতুল বিদা, যা মাহে রমজানের পরিসমাপ্তিসূচক শেষ শুক্রবার পালিত হয়। জামাতে জুমাতুল বিদার নামাজ আদায়ের জন্য প্রতি বছর রাজধানী ঢাকাসহ সারা দেশেই মসজিদগুলোতে অসংখ্য মুসল্লির ভিড় হয়।

মসজিদের বারান্দা, ছাদ ও এমনকি আশপাশের রাস্তায় দাঁড়িয়েও মুসল্লিরা নামাজ আদায় করেছেন। ছবি: জিএম মুজিবুরএবার করোনা ভাইরাস পরিস্থিতির কারণে নিরাপদ দূরত্ব মেনে বিভিন্ন মসজিদ পূর্ণ হয়ে রাস্তা পর্যন্ত মুসল্লিদের সমাগম হয়। মসজিদের বারান্দা, ছাদ ও এমনকি আশপাশের রাস্তায় দাঁড়িয়েও মুসল্লিরা নামাজ আদায় করেছেন। রাজধানীসহ সারা দেশের সব মসজিদের চিত্রই প্রায় একইরকম ছিল।

সকাল থেকেই প্রস্তুতি নিয়ে নামাজের অনেক আগেই মুসল্লিরা আসতে থাকেন মসজিদে। প্রস্তুতি নেন নামাজ আদায়ের। আজানের পরপরই চলতে থাকে খুতবা।

রমজানের শেষ শুক্রবার খুদবায় বিদায় জানানো হয় আত্মশুদ্ধি ও সংযমের এ মাসকে। একইসঙ্গে খতিবরা জুমার খুতবায় আলোচনা করেছেন রমজানের তাৎপর্য ও কোরআন নাজিলসহ ইসলামী জীবনযাপন সম্পর্কে।

খুতবা শেষে রহমত, মাগফেরাত ও নাজাতের মাসের শেষ শুক্রবারে জুমার নামাজ আদায়ে এক কাতারে দাঁড়িয়ে পড়েন মুসল্লিরা। জুমার দুই রাকাত ফরজ নামাজ আদায় করেন তারা। নামাজের পর দীর্ঘ মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়। নামাজ শেষে বিশেষ এ মোনাজাতে দেশ, জাতি ও মুসলিম উম্মাহর সুখ, শান্তি, সমৃদ্ধি ও কল্যাণ কামনা করা হয়।