জন্মাষ্টমী নিয়ে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা

Online Desk Saju Online Desk Saju
প্রকাশিত: ০৬:০২ পিএম, ২৯ আগষ্ট ২০২১

করোনা ভাইরাস মহামারির মধ্যে আবারও এসেছে জন্মাষ্টমী। ফলে এ উপলক্ষে সব ধরনের মিছিল, র‌্যালি ও শোভাযাত্রা বন্ধ থাকবে। তবে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব অনুসরণ করে সকল ধর্মীয় আচার-অনুষ্ঠান পালিত হবে।
রোববার (২৯ আগস্ট) এ সংক্রান্ত জরুরি বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, কোভিড-১৯ সংক্রমণ পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের গত ৬ আগস্ট জারি করা জরুরি বিজ্ঞপ্তি অনুমতিক্রমে দেশের বর্তমান প্রেক্ষাপটে সব ধর্মের ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে ইতোপূর্বে আরোপিত বিধিনিষেধ বহাল থাকবে। একইসঙ্গে শুভ জন্মাষ্টমী উপলক্ষে সব প্রকার শোভাযাত্রা, র‍্যালি, মিছিল ইত্যাদি বন্ধ থাকবে।

তবে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব অনুসরণ করে অবশ্যই সব ধর্মীয় আচার-অনুষ্ঠান পালিত হবে।

মহামারির করোনার কারণে গত ২০ আগস্ট পবিত্র আশুরা উপলক্ষেও সব প্রকার তাজিয়া মিছিল, শোভাযাত্রা, মিছিল বন্ধ ঘোষণা করেছিল সরকার।

জন্মাষ্টমী সনাতন ধর্মাবলম্বীদের একটি গুরুত্বপূর্ণ ধর্মীয় উৎসব। প্রতিবছর এ দিনটি বিষ্ণুর অবতার কৃষ্ণের জন্মদিন হিসেবে উদযাপন করা হয়। আগামীকাল সোমবার (৩০ আগস্ট) শুভ জন্মাষ্টমী উদযাপন হবে।

জন্মাষ্টমীর পুজো শুরু হবে অষ্টমী লাগার পর। এ বছর ইংরেজির ৩০ আগস্ট পড়েছে জন্মাষ্টমী ৷ যা শেষ হচ্ছে ৩১ আগস্ট মঙ্গলবার সকাল ৯টা বেজে ৪৪ মিনিটে। অষ্টমী তিথি শেষ হচ্ছে সোমবার রাত ১ টা ৫৯ মিনিটে।

শ্রীকৃষ্ণের পুজো করার সময় কয়েকটি নিয়ম অবশ্যই মানতে হবে। শাস্ত্রে রয়েছে দুর্ভাগ্যকে, সৌভাগ্যে পরিণত করতে শুধু কৃষ্ণ নামই যথেষ্ট। এ দিন নতুন করে সাজিয়ে তুলুন কৃষ্ণ মূর্তিকে। পরান নতুন পোশাক, গয়না। কৃষ্ণকে ভোগ দিন মাখন, মিছরি।

জন্মাষ্টমীর দিবস মধ্যাহ্নে শ্রী শ্রী ঠাকুরের ভোগ দিতে হবে অন্যান্য দিনের মতোই। পরে সন্ধ্যা আরতি করে সন্দেশ ভোগ দিয়ে কৃষ্ণকে য়শন দিতে হবে। রাত বারোটার সময় তাকে জাগিয়ে করে পঞ্চামৃতের দ্বারা স্নান করিয়ে ফুল দিয়ে পুজো করে পাঞ্জরী দিতে হবে (ধনিয়া চূর্ণ ঘিয়ে ভেজে তাতে ঘি মিশিয়ে যে বস্তু তৈরি হয় তাকে পাঞ্জরী বলে)। কেউ কেউ এতে বাদাম, নারকেল, কিশমিশ দিয়ে থাকেন), দই, মিষ্টি প্রভৃতি ফলার ভোগ দিতে হবে ।