পঞ্চাশ বছরেও নির্মিত হয়নি হিলির তুলশীগঙ্গা নদীর ওপর কাঙ্খিত সেতু

প্রকাশিত: জানুয়ারী ১০, ২০২২, ০৯:৫০ রাত
আপডেট: জানুয়ারী ১০, ২০২২, ০৯:৫০ রাত
আমাদেরকে ফলো করুন

হাকিমপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: দিনাজপুরের হাকিমপুর হিলির উপজেলা সদর থেকে ১০ কিলোমিটার পূর্বদিকে তুলশীগঙ্গা কোল ঘেঁষে গড়ে উঠেছে আলীহাট ইউনিয়ন। এই ইউনিয়নকে দুইভাবে বিভক্ত করেছে এই নদীটি। এই নদীর পূর্বপাশে বাঁশমুড়ি বাজার ও ডুগডুগী বাজারের অবস্থান। এই ইউনিয়নের বাসিন্দাদের পাশাপাশি ঘোড়াঘাট ও পাঁচবিবি উপজেলার বেশ কয়েকটি গ্রামের বাসিন্দারাও এই নদী ব্যবহার করে পারাপার হয়ে থাকেন। প্রতিশ্রুতি মিলেছে বহুবার, কিন্তু দিন মাস পেরিয়ে বছর যায় সেই প্রতিশ্রুতির বাস্তবায়ন দেখে না মানুষ।
স্বাধীনতার ৫০ বছর পেরিয়ে গেলেও তুলশী গঙ্গা নদীর ওপরে হয়নি সেই কাঙ্খিত সেতু। তাই অনেকটাই জনপ্রতিনিধিদের ওপর অভিমান করে ২শ’ ফুট একটি কাঠের সেতু তৈরি করে স্থানীয়রা। সেটি আবার চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। এতে আরও বিপাকে পড়েছে উপজেলার ছোট আলীহাট, বাঁশমুড়ি, কাশিয়াডাঙ্গাসহ আট গ্রামের মানুষ। প্রতিশ্রুতি নয়, এবার দ্রুত একটি সেতু বাস্তবায়নের দাবি স্থানীয়দের।
জানা যায়, স্বাধীনতার পর থেকেই তুলশীগঙ্গা নদী পারাপারে নৌকা ব্যবহার করেন বাঁশমুড়ি, ছোট আলীহাট ও পাঁচবিবি, ঘোড়াঘাট উপজেলার কয়েক হাজার বাসিন্দারা। কিন্তু নৌকায় নদী পাড়ি দিতে গিয়ে বিভিন্ন সময় দুর্ঘটনা ঘটে। এর ফলে স্থানীয়রা সেই নদীতে একটি সেতু নির্মাণ করার জন্য সরকারের কাছে দাবি জানিয়ে আসছেন। সেতুটি নির্মাণ হলে উপজেলার প্রায় কয়েক হাজার মানুষের যাতায়াতের সুবিধা হবে। সেই সাথে ফিরবে এখানকার মানুষের জীবন মানের উন্নয়ন।
এলাকাবাসী জানান, সেতু না থাকার কারণে মাথায় করে মালামাল নিয়ে সাঁকো পার হতে হয়। যদি সেতু থাকত তাহলে আর কোনো দুঃখ-কষ্ট থাকত না। দ্রুত একটি সেতু করে দেয়ার জন্য সরকারের কাছে দাবি জানান তারা। স্বাধীনতার পর থেকেই এই নদীর ওপর সেতু হবে-হচ্ছে বলে আশায় বুক বেঁধে আছেন  ইউনিয়নের লাখো মানুষ। সেতুর অভাবে মানুষজন অনেক কষ্ট করে নদী পার হয়। অনেক সময়ই দুর্ঘটনা ঘটে। মাঝে-মধ্যে যখন এই সাঁকো ভেঙে পড়ে তখন মানুষের দুর্ভোগ আরও বেড়ে যায়। মানুষের এই দুর্ভোগ লাঘবে অনতিবিলম্বে একটি সেতু নির্মাণের দাবি জানান তারা।
আলীহাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু সুফিয়ান জানান, এই ইউনিয়নের কয়েক গ্রামের মানুষের দুঃখ দূর করতে তুলশীগঙ্গা নদীর ওপর সেতু করার জন্য সংশ্লিষ্ট দফতরগুলোতে আমরা বারবার যোগাযোগ করছি। আশা করছি দ্রুত এটি বাস্তবায়ন করা হবে।
উপজেলা চেয়ারম্যান হারুন উর রশিদ হারুন বলেন, আমাদের উপজেলার আলীহাট ইউনিয়নের তুলশীগঙ্গা নদীর ওপর সেতু নির্মাণের টেন্ডার প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। সেতুটি দৃষ্টি নন্দন একটি সেতু হবে। দ্রুত সেতুটি নির্মাণ হবে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়