ফুলবাড়ীতে নির্বাচনী সহিংসতায় একজন নিহত, সড়ক অবরোধ

Online Desk Aminul Online Desk Aminul
প্রকাশিত: ০৭:৩৭ পিএম, ২৪ নভেম্বর ২০২১

ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি: ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সহিংসতার ঘটনায় কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলায় প্রতিপক্ষের মারপিটের আঘাতে একজনের মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে গতকাল বুধবার ২ ঘণ্টাব্যাপী সড়ক অবরোধ করে রেখেছে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী।
এলাকাবাসী জানান, গত সোমবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে  উপজেলার ভাঙ্গামোড় ইউনিয়নে উত্তর রাবাইটারী বটতলা বাজারে ৩ নম্বর ওয়ার্ডে দুই ইউপি সদস্য প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে কথা কাটাকাটির ঘটনা ঘটে। এক পর্যায়  ওই ওয়ার্ডে তালা প্রতীকের প্রার্থী শাহজালাল নিজেই বৈদ্যুতিক ফ্যান প্রতীক মুকুল মিয়ার কর্মী বাবুল মিয়াকে (৪০) গালমন্দ করেন। এক পর্যায়ে বাবুল মিয়াকে রাস্তার নামা স্থান থেকে উঠে নিয়ে আসে শাহজালাল আলীর লোকজন। পরে ফুলবাড়ী নাগেশ্বরী সড়কে বটতলা বাজারে চায়ের দোকানের গাছে ডাল ও খড়ি দিয়ে এলোপাতাড়ী মারপিট ও কিলঘুষি মারে বাবুল মিয়ার ওপর। তাদের বেপড়রায় মারপিটের দৃশ্য দেখে ভয়ে আত্মগোপন হয় ফ্যান প্রতীকের অন্যরা। পরে আহত হওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়লে লোকজন ছুটে এসে বাবলু মিয়াকে উদ্ধার করে একটি ক্লিনিকে ভর্তি করায়। সেখানে চিকিৎসা নিয়ে মঙ্গলবার বাড়িতে আসলে রাত সাড়ে ৭টায় তার মৃত্যু হয়। নিহত বাবলু মিয়া উত্তর রাবাইটারী গ্রামের মৃত আজগার আলীর ছেলে।  মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে নারী পুরুষ বিক্ষোভে ফেটে পড়ে। ঘটনার মীমাংসার জন্য ওই রাতে দফায় দফায় বৈঠক চলে নিহতের বাড়িতে। গতকাল এলাকার লোকজন জড়ো হয়ে লাশ দাফন না করে রাস্তা অবরোধ শুরু করেন। রাস্তায় বাঁশ দিয়ে বন্ধ করা হয় যানবাহন। দুই ঘণ্টাব্যাপী পথচারী ও যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে ফুলবাড়ী -নাগেশ্বরী চলাচল সড়কের। পুলিশ ও ম্যাজিস্ট্রট ঘটনাস্থলে পৌঁছলে তাদের দাবি শোনার পর অবরোধ তুলে নেয় বিক্ষুব্ধ জনতা। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ফুলবাড়ী থানায় নিয়ে আসে।
ফ্যান প্রতীকের প্রার্থী মুকুল মিয়া জানান, ২৮ নভেম্বর আমাদের ইউনিয় ভোট অনুষ্ঠিত হবে। সে জন্য আমরা প্রচার প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছি। হঠ্যাৎ করে আমার নিরপরাধ কর্মীকে মারপিট করে হত্যা করা হয়েছে। আমি এর সঠিক বিচার চাই।
নাগেশ্বেরী বি-র্সাকেল সহকারী পুলিশ সুপার সুমন রেজা জানান, লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। তদন্ত করে পরবর্তীতে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। সেখানকার পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।  
উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বিমুল চাকমা জানান, খবর পেয়ে পুলিশসহ নিহতের বাড়িতে যাওয়া হয়। তারা কোন অভিযোগ না করায় লাশ দাফনের জন্য নিহতের স্বজনরা দাবি করেন। কিন্তু মঙ্গলবার পুনরায় বিচার চেয়ে রাস্তা অবরোধ করেন। ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের দাবি শোনার পর লাশ  নিয়ে আসা হয়েছে। মেডিকেল রিপোর্ট পাওয়ার পুলিশ ব্যবস্থ্যা নেবেন।


আরও পড়ুন