হঠাৎ বন্যায় লালমনিরহাটে ২৯ হাজার পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত

Online Desk Aminul Online Desk Aminul
প্রকাশিত: ০৮:৫৪ পিএম, ২২ অক্টোবর ২০২১

লালমনিরহাট প্রতিনিধি: হঠাৎ বন্যায় লালমনিরহাট জেলার ৪৫টি ইউনিয়নের মধ্যে তিস্তাপারের ১৭টি ইউনিয়নের ২৯ হাজার ৭১৩ পরিবারের ১ লাখ ১৭ হাজার ২৫২ জন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। শুক্রবার জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের বন্যাসংক্রান্ত সর্বশেষ ক্ষয়ক্ষতির বিবরণ থেকে এই তথ্য পাওয়া যায়।
আকস্মিক বন্যার পানি এসে বুধবার লালমনিরহাট জেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন, গ্রাম ও নিচু এলাকা প্লাবিত হয়। ওই দিন সকাল ৯টার দিকে লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার দোয়ানীতে অবস্থিত তিস্তা ব্যারাজ পয়েন্টে পানি বিপৎসীমার ৬০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয়। ওই পয়েন্টে বিপৎসীমা ৫২ দশমিক ৬০ সেন্টিমিটার। আজ শুক্রবার বেলা ৩টায় তিস্তা ব্যারাজের ডালিয়া পয়েন্টে তিস্তা নদীর পানি বিপৎসীমার ৬০ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে।
শুক্রবার জেলা প্রশাসক মো. আবু জাফর বলেন, লালমনিরহাটের তিস্তা নদীর তীর ঘেঁষে নিচু এলাকায় যে পানিবন্দী সমস্যা ছিল, সেটা আর নেই। পানি নেমে গেছে। এখন বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলো আগের অবস্থায় ফিরে যেতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে যথাসম্ভব সব ধরনের সহযোগিতা করার উদ্যোগ নেওয়া হবে। তাদের নিজেদেরও ঘুরে দাঁড়াতে চেষ্টা করতে হবে।
শুক্রবার সরেজমিন লালমনিরহাটের কালীগঞ্জের কাকিনা ইউনিয়নের তিস্তাপারের রুদ্রেশ্বর গ্রামের ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক সেকেন্দার আলীর (৬৫) সঙ্গে কথা হয়। তিনি বলেন, ‘মোর বাড়িতে পানি উঠি ঘর পড়ি গেইছে। মানষের বাড়িত থাকং। মোক কাও সাহায্য দেয় নাই। মুই এলা চলিম কেমন করি।’
একই গ্রামের আবেদ আলীর স্ত্রী মর্জিনা বেগম বলেন, ‘মোর বাড়ির উঠানোত এলাও চিপচিপানি পানি। নামাত পানি। বাড়ির ল্যাট্রিন পানি উঠি নষ্ট হইছে।’
এদিকে শুক্রবার দুপুরে লালমনিরহাটের কালীগঞ্জের কাকিনা ইউনিয়নের মহিমা রঞ্জন স্মৃতি উচ্চবিদ্যালয় মাঠে কাকিনা ইউনিয়নের বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত দেড় হাজার পরিবারের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী এনামুর রহমান। এ সময় ভার্চ্যুয়াল বক্তৃতা করেন লালমনিরহাট-২ (আদিতমারী-কালীগঞ্জ) আসনের সাংসদ ও সমাজকল্যাণমন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ। সভাপতিত্ব করেন লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক মো. আবু জাফর। বিশেষ অতিথি ছিলেন লালমনিরহাট-১ আসনের সাংসদ ও লালমনিরহাট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোতাহার হোসেন, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মহসিন, লালমনিরহাট জেলা পুলিশ সুপার আবিদা সুলতানা ও কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আবদুল মান্নান।


আরও পড়ুন