নন্দীগ্রামে করোনার প্রভাবে জমিতেই পচছে টমেটো

Online Desk Saju Online Desk Saju
প্রকাশিত: ০৫:০৪ পিএম, ২৬ এপ্রিল ২০২০

নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি : বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলার পল্লীতে করোনার প্রভাবে জমিতেই পচছে টমেটো। করোনা ভাইরাসের কারণে যানবাহন বন্ধ থাকায় বিপাকে পড়েছেন কৃষকরা।
জানা গেছে, সম্প্রতি সর্বশেষ নন্দীগ্রামসহ বগুড়া জেলাকে লকডাউন ঘোষণার পর এই উপজেলার বিভিন্ন স্থান থেকে পাইকারী ব্যবসায়ীরা আসতে পারছেন না। আবার হাট-বাজারেও তেমনি টমেটো বিক্রি করতে পারছেন না কৃষকরা। যার ফলে জমির মাঝেই পচে নষ্ট হচ্ছে টমেটো। রোববার সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, নন্দীগ্রাম উপজেলার ভাটগ্রামে মাঠে কৃষক রুহুল আমিন ২ বিঘা জমি বর্গা নিয়ে টমেটো চাষ করেছেন। বাঁশের বেড়ার ওপর ঝুলছে থোকাথোকা টমেটো। এ যেন কৃষকের থোকা থোকো স্বপ্ন। কোনোটা কাঁচা, আবার কোনোটা পাকা। এমন কাঁচাপাকা টমেটোতেই কৃষকের বাজিমাত। লকডাউনের কারণে ও মূল্য কমে যাওয়ায় কৃষকরা উৎপাদিত টমেটো নিতে পারছেন না। ফলে জমিতেই টমেটো পচে নষ্ট হচ্ছে। এতে করে তার দুই লাখ টাকার ক্ষতি হতে পারে। তার মতো অনেক চাষীরই একই অবস্থা। টমেটো চাষী রুহুল আমিন বলেন, করোনাভাইরাস আসার আগে প্রতিদিন ১০ মণ টমোটো বিক্রি করতেন। দামও ভাল ছিল। এখন চলমান লকডাউনের কারনে যানবাহন বন্ধ থাকায় টমেটো কিনতে পাইকাররা আসছে না। যার কারনে টমেটো পেকে ক্ষেতেই ঝড়ে পড়ে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। করোনার প্রভাবে প্রায় দুই লাখ টাকার ক্ষতি হবে।
এবিষয়ে উপজেলা কৃষি অফিসার মো. আদদান বাবু বলেন, এই উপজেলায় ৩৫ হেক্টর জমিতে টমেটো চাষ করা হয়েছে। করোনার প্রভাবে যাদের জমিতে টমেটো নষ্ট হচ্ছে, সেই টমেটো বাজারজাত করার জন্য চেষ্টা করা হচ্ছে।


আরও পড়ুন