নন্দীগ্রামে চেয়ারম্যান প্রার্থীকে মারপিট

Online Desk Aminul Online Desk Aminul
প্রকাশিত: ০৯:৫৯ পিএম, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১

নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি: চতুর্থ ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলার ৪টি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। চেয়ারম্যান পদে ভোটযুদ্ধে অংশ নিয়েছেন ১৯ জন প্রার্থী। গতকাল মঙ্গলবার প্রতীক বরাদ্দের পর থেকেই নির্বাচনী প্রচারণা শুরু হয়েছে। অন্যদিকে প্রতীক বরাদ্দের পর ভাটরা ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থীকে মারপিটের অভিযোগ পাওয়া গেছে।
উপজেলা নির্বাচন অফিসার মো. আব্দুস সালাম বলেন, ঘোষিত তফশিল অনুযায়ী প্রার্থীদের প্রতীক দেওয়া হয়েছে। ২৬ ডিসেম্বর ব্যালট পেপারের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। প্রতীক বরাদ্দ পেয়েছেন সদর ইউনিয়নে মখলেছুর রহমান মিন্টু (নৌকা), বর্তমান চেয়ারম্যান প্রভাষক আব্দুল বারী (চশমা), রেজাউল করিম কামাল (আনারস), ভাটরা ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান মোরশেদুল বারী (নৌকা), মজনুর রহমান মজনু (আনারস), আবদুল্লাহেল বাকী (ঘোড়া), মোখলেছুর রহমান (হাতপাখা), লুৎফর রহমান (মোটরসাইকেল), থালতা-মাঝগ্রাম ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন (আনারস), হাফিজুর রহমান নান্টু (নৌকা), সাবেক চেয়ারম্যান এ্যাড. ইলিয়াস আলী (মোটরসাইকেল), জিল্লুর রহমান (অটোরিক্সা), এহসানুল ইসলাম খান (চশমা), মাহবুবুর রহমান (ঘোড়া) এবং ভাটগ্রাম ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ (চশমা), সাবেক চেয়ারম্যান শামছুর রহমান (আনারস), জুলফিকার আলী (নৌকা), রেজাউৎদৌলা ববি (মোটরসাইকেল), এহতাশামুল আলম (ঘোড়া)।
এদিকে প্রতীক বরাদ্দের পর বিকেলে ভাটরা ইউনিয়নের পন্ডিতপুকুর বাজারে স্বতন্ত্র প্রার্থী আবদুল্লাহেল বাকীর ওপর হামলা, অফিস ও মটরসাইকেল ভাঙচুর করা হয়েছে। আওয়ামীলীগ মনোনীত (নৌকা) প্রার্থী মোরশেদুল বারীর সমর্থকরা হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ করেন ওই স্বতন্ত্র প্রার্থী। এ ঘটনায় আহত কয়েকজনকে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।
নৌকার প্রার্থী মোরশেদুল বারী পাল্টা অভিযোগ করে বলেন, আমি বগুড়া শহরে নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে দলীয় কাজে আছি। আমার সমর্থকরা নির্বাচনী প্রচারণা চালাতে গেলে স্বতন্ত্র প্রার্থী বাকীর উস্কানিতে অতর্কিত হামলা করে। আহত ৮-১০ জনকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।


আরও পড়ুন