গাবতলীতে আ‘লীগের চেয়ারম্যানপ্রার্থী চূড়ান্ত স্বতন্ত্র হিসেবে রয়েছেন বিএনপির নেতাকর্মিরা

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ০৩, ২০২১, ০৮:০৬ রাত
আপডেট: ডিসেম্বর ০৩, ২০২১, ০৮:০৬ রাত
আমাদেরকে ফলো করুন

গাবতলী (বগুড়া) প্রতিনিধি: ৫ম ধাপে বগুড়ার গাবতলী উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনী তফশিল ঘোষনা করা হয়েছে। তফশিল ঘোষনার আগে থেকেই ইউপি চেয়ারম্যান, সাধারণ সদস্য ও সংরক্ষিত আসনের সদস্যরা ভোট যুদ্ধে মাঠে নেমেছেন। এখন যারা প্রার্থী হবেন তারা মনোনয়ন উত্তোলন এবং যাবতীয় কাগজপত্র সংগ্রহ শুরু করেছেন। সকল প্রার্থীদেরকে শান্তিপূর্নভাবে মনোনয়ন ফরম বিতরণ করতে ৯টি ইউনিয়নের জন্য নির্বাচন কর্মকর্তাসহ ৪জন উপজেলা কর্মকর্তাকে রিটানিং অফিসারের দায়িত্ব প্রদান করে তাদের মধ্যে ইউনিয়ন বন্টন করা হয়েছে। তারা হলেন উপজেলা প্রকৌশলী কর্মকর্তা রিপন কুমার সাহাকে মহিষাবান ও নশিপুর ইউনিয়ন, সমাজসেবা কর্মকর্তা আব্দুল হান্নানকে রামেশ্বরপুর ও নারুয়ামালা ইউনিয়ন,  মৎস কর্মকর্তা আরিফ রহমানকে কাগইল ও দক্ষিনপাড়া এবং নির্বাচন কর্মকর্তা রুহুল আমীনকে গাবতলী সদর, দূর্গাহাটা ও বালিয়াদিঘী ইউনিয়নের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে গত বৃহস্পতিবার আওয়ামী লীগের একক প্রার্থীদের নাম ঘোষনা করা হয়েছে। তারা হলেন, নাড়ুয়ামালা ইউনিয়নে আব্দুল গফুর মন্ডল, দূর্গাহাটা ইউনিয়নে বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল মতিন মিঠু, গাবতলী সদর ইউনিয়নে ফারুক আহম্মেদ, ইউনুছ আলী ফকির, রামেশ্বরপুর ইউনিয়নে বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান সেকেন্দার আলী, আবুল কালাম আজাদ, মহিষাবান ইউনিয়নে সাকিল ইসলাম বুলেট, কাগইল ইউনিয়নে দিল আফরোজ খাতুন লাবনী এবং দক্ষিণপাড়া ইউনিয়নে এড. রফিকুল ইসলাম।
কাগইল ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে দিল আফরোজ খাতুন লাবনীকে মনোনীত করায় সোসাল মিডিয়া ফেসবুকে ব্যাপক ঝড় উঠেছে।
এদিকে বিএনপি এবার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করার ঘোষনা দিলেও গাবতলীতে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে অনেক  বিএনপি ও অঙ্গদলের নেতাকর্মীরা ভাটের মাঠে নেমেছে।
এদের মধ্যে যাদের নাম শোনা যাচ্ছে তারা হলেন গাবতলী সদর ইউনিয়নে সাহাদত হোসেন খান সাগর, নাড়ুয়ামালা ইউনিয়নে ফজলে রাব্বী ফিরোজ মন্ডল, রামেশ্বরপুরে ইউনিয়ন আব্দুল ওহাব মন্ডল, নশিপুরে ইউনিয়ন জোবাইদুর রহমান গামা, মহিষাবান ইউনিয়নে আব্দুল মজিদ মন্ডল, বালিয়াদিঘী ইউনিয়নে সাকিউল ইসলাম তীতু, দূর্গাহাটা ইউনিয়নে নজরুল ইসলাম নাননু। ৯টি ইউনিয়নের মধ্যে দক্ষিণপাড়া ও কাগইল ইউনিয়নে কারো নাম শোনা যাচ্ছেনা।
এছাড়া ০৯ টি ইউনিয়নে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ তারিখ ৯ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার। বাচাইয়ের শেষ তারিখ ১২ ডিসেম্বর। ঘোষিত তফশিল অনুযায়ী আগামী ০৫ জানুয়ারী ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে। তবে ৩টি ইউনিয়ন বিভাজন ও ভোটার নির্ণয় না হওয়ায় ভোট স্থগিত রয়েছে। গাবতলী উপজেলার যে ৩টি ইউনিয়নের ভোট স্থগিত রয়েছে সেগুলি হলো নেপালতলী, সোনারায় ও সুখানপুকুর ইউনিয়ন।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়