বগুড়ায় একই প‌রিবা‌রের ৭ জন এবং ৪ পুলিশ সদস্যসহ ১১জন করোনায় আক্রান্ত

Online Desk Online Desk
প্রকাশিত: ১০:১৫ পিএম, ১২ মে ২০২০

স্টাফ রিপোর্টার ঃ বগুড়া শহরের জলেশ্বরীতলার একই পরিবারের ৭ সদস্য এবং ৪ পুলিশসহ নতুন করে আরও ১১ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মোস্তাফিজুর রহমান তুহিন এ তথ্য জানিয়েছেন। একদিনে এ পর্যন্ত এটাই সর্বাধিক ।  এ নিয়ে গত ১ এপ্রিল থেকে বগুড়ায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা অর্ধশত ছাড়ালো। তাদের মধ্যে ৯জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন। 

মঙ্গলবার বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজের মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের পিসিআর ল্যাবে এ জেলার ১৭৬টিসহ মোট ১৮৮ নমুনা পরীক্ষা করা হয়। বাদবাকি ১২টি সিরাজগঞ্জের নমুনা ছিল।
বগুড়ার ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মোস্তাফিজুর রহমান তুহিন জানান, বগুড়া পুলিশ লাইনে কর্মরত পুলিশের যেসব সদস্য আক্রান্ত হয়েছে তাদের বাইরে যাওয়ার কোন হিস্ট্রি নেই। তাদের মধ্যে একজন সহকারি উপ-পরিদর্শক পদমর্যাদার। তার বয়স ৫৬ বছর। আর বাকি ৩জন কনস্টেবল। তাদের বয়স যথাক্রমে ৫৫, ৫৬ ও ২৭। গত ১১ মে তাদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়।

অন্যান্য সংবাদ সমূহ

করোনা ভাইরাস নির্মূল হওয়ার সম্ভাবনা নেই: হু

৩০ মে পর্যন্ত বাড়ালো সাধারণ ছুটি

বগুড়ায় এক চিকিৎসকসহ আরও ৫ জন করোনায় আক্রান্ত

সিরাজগঞ্জে করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুর ঘটনায় ১৭ জনের নমুনা সংগ্রহ

৬৫ বছরের নানার সাথে অষ্টম শ্রেণী পড়ুয়া নাতনীর বিয়ে

জেলা স্বাস্থ্য দপ্তরের দেওয়া হিসাব অনুযায়ী বগুড়ায় এ পর্যন্ত ২ নারী কনস্টেবলসহ মোট ৯ পুলিশ সদস্য করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তাদের মধ্যে আহসান হাবিব নামে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশে (ডিএমপি) কর্মরত এক কনস্টেবল সুস্থ হয়ে বগুড়ার আদমদীঘিতে তার বাড়ি ফিরে গেছেন।
ডা. মোস্তাফিজুর রহমান তুহিন জানান, শহরের জলেশ্বরীতলা এলাকার এক ব্যবসায়ী পরিবারের যে ৭জন আক্রান্ত হয়েছেন তারা সবাই ঢাকাফেরত। ওই ৭জনের মধ্যে ৩জন পুরুষ এবং ৪জন নারী। পুরুষদের বয়স হলো- ৩৯, ৩৫ ও ২৭। নারীদের বয়স যথাক্রমে ৫৯, ৫৭, ১৮ ও ১৪। গত ৮ মে তারা ঢাকা থেকে বগুড়া ফেরেন। এরপর ১১ মে তাদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়।

বগুড়ায় পুলিশের মিডিয়া বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তী জানান, পুলিশ লাইনে ইতিপূর্বে করোনায় আক্রান্ত এক কনস্টেবলের সঙ্গে একই রুমে থাকার কারণে নতুন করে ৪জন আক্রান্ত হয়েছেন। তিনি জানান, বগুড়ার আক্রান্ত পুলিশ সদস্যদের মধ্যে বর্তমানে ৫ জনকে পুলিশ লাইনে আইসোলেশনে রেখেই চিকিৎসা দেওয়া হবে। তারা আক্রান্ত হলেও বেশ সুস্থ আছেন। 

করোনা রোগীদের জন্য বিশেষায়িত হাসপাতাল বগুড়া মোহাম্মদ আলী হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ডাঃ শফিক আমীন কাজল জানান, আক্রান্ত পুলিশ সদস্যদের মধ্য ৩ জনকে ওই হাসপাতালে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। যাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে তারা বয়স্ক এবং ডায়াবেটিকসসহ বিভিন্ন ক্রনিক ডিজিজে ভুগছেন। হাসপাতালে বর্তমানে ৯ জন রোগী ভর্তি আছেন এবং তারা সবাই করোনা পজিটিভ।

বগুড়ার ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মোস্তাফিজুর রহমান জানান, জলেশ্বরীতলা একই পরিবারের ৭জনকে তাদের বাড়িতেই লকডাউনে রাখা হয়েছে। সেখানেই তাদেরকে চিকিৎসা দেওয়া হবে।


আরও পড়ুন