পদ্মার পানিতে ডুবল কুষ্টিয়ার ৩৫ গ্রাম

Online Desk Saju Online Desk Saju
প্রকাশিত: ০৭:০৪ পিএম, ২১ আগষ্ট ২০২১

পদ্মা নদীতে পানি বাড়তে থাকায় এর তীরবর্তী কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর উপজেলার চিলমারি, রামকৃষ্ণপুর ও মরিচা ইউনিয়নের প্রায় ৩৫টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। এতে পানিবন্দি হয়ে পড়েছে দুটি ইউনিয়নের প্রায় ২৫ হাজার মানুষ

কুষ্টিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) বলছে, গত কয়েকদিনে পানির উচ্চতা সবচেয়ে বেশি বেড়েছে। হার্ডিঞ্জ ব্রিজ পয়েন্টে পদ্মার বিপদসীমা নির্ধারণ আছে ১৪ দশমিক ২৫ সেন্টিমিটার। সেখানে আজ মঙ্গলবার পানির উচ্চতা ছিল ১৭ দশমিক ১৮ সেন্টিমিটার, যা সতর্কবার্তা।
 
কুষ্টিয়া পাউবোর উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী এ কিউ এম জহুরুজ্জামান বলেন, হঠাৎ পানি বাড়ছে। আরও দু-একদিন পানি বাড়ার পর কমতে পারে। তবে আমাদের ধারণা পানি বিপদসীমা অতিক্রম করবে না।
 
এ বিষয়ে রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সিরাজ মন্ডল জানান, তার ইউনিয়নের ১৭টি গ্রামের মানুষ এখন পানিবন্দি।
 
তিনি আরও জানান, ৬০ ভাগ এলাকার বসতবাড়ি পানিতে প্লাবিত। চরম দুর্ভোগে রয়েছেন পানিবন্দি মানুষ। চরের ফসল হারিয়ে দিশেহারা বানভাসি মানুষ।

 
এ বিষয়ে চিলমারী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সৈয়দ আহমেদ জানান, তার ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি গ্রামে বন্যার পানি ঢুকতে শুরু করেছে।
 
এ ব্যাপারে দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শারমিন আক্তার বলেন, বন্যা কবলিত এলাকায় ত্রাণ সহায়তার জন্য জেলা প্রশাসক বরাবর চিঠি লেখা হচ্ছে।  সহযোগিতা পেলে আমরা বন্যা কবলিত এলাকায় তা বিতরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।