জন্মদিনে দুস্থ-অসহায়দের পাশে বিএনপি নেতা বকুল

DhakaNANDI DhakaNANDI
প্রকাশিত: ০৯:৫৩ পিএম, ০২ সেপ্টেম্বর ২০২১

করতোয়া ডেস্ক : নীরবে-নিভৃতেই কাটলো একাদশ সংসদ নির্বাচনে খুলনা-৩ আসনে বিএনপি মনোনীত ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী ও সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রদল নেতা রকিবুল ইসলাম বকুলের ৫৫তম জন্মদিন। প্রচারবিমুখ বকুল কখনোই আনুষ্ঠানিকভাবে তার জন্মদিন পালন করেন না। এমনকি নেতা-কর্মী-সমর্থকদেরও তার জন্মদিন পালনে নিষেধ করেন। ফলে বরাবরের মতো এবারও তার জন্মদিনে ছিল না কোনো আয়োজন। তবে এবার জন্মদিনে তিনি দাঁড়িয়েছেন দুস্থ-অসহায় মানুষের পাশে। ১ সেপ্টেম্বর নিজের ৫৫তম জন্মদিন ও বিএনপির ৪৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে বকুলের উদ্যোগে খুলনায় আটশ’ দুস্থ-নিরন্ন মানুষের মাঝে রান্না করা খাবার বিতরণ করা হয়েছে।

১৯৬৭ সালের  ১ সেপ্টেম্বর কুষ্টিয়ার ভেড়ামারার এক নিভৃত পল্লীতে জন্মগ্রহণ করেন রকিবুল ইসলাম বকুল। তার পিতা মরহুম বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম ও মা সাহারা বেগম। রকিবুল ইসলাম বকুল যে দিনটিতে জন্মগ্রহণ করেছিলেন সেই দিনটি ছিল ‘ঈদের দিন’। ঈদের দিনে অতিথি পেয়ে পিতা-মাতা ছিলেন আনন্দে আত্মহারা।  

বকুল পিতার আদি নিবাস কুষ্টিয়ায় জন্ম নিলেও পিতা চাকরিসূত্রে থাকতেন খুলনার খালিশপুরে। চাকরি করতেন ক্রিসেন্ট জুট মিলে অফিসার হিসেবে। সঙ্গত কারণেই বকুলের শৈশব এবং কৈশোর কেটেছে খালিশপুরে। 

ছাত্রজীবনে অত্যন্ত মেধাবী ছিলেন রকিবুল ইসলাম বকুল। ক্লাস ওয়ান থেকে নবম শ্রেণি পর্যন্ত পড়েন রোটারি স্কুলে।  পরবর্তীতে চরেরহাট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ভর্তি হন। সেখান থেকে ‘স্টার মার্ক’সহ মাধ্যমিক পাশ করেন প্রথম শ্রেণিতে। এরপর ভর্তি হন ঐতিহ্যবাহী বি এল কলেজে। সেখান থেকে ইন্টারমিডিয়েট পাশ করেন ‘স্টার মার্ক’সহ। এরপর ভর্তি হন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগে। সেখানেও তিনি কৃতিত্বের সাথে অনার্স-মাস্টার্স শেষ করেন। পরবর্তীতে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এমবিএ ডিগ্রী অর্জন করেন। 

শৈশব থেকেই অত্যন্ত ডানপিটে স্বভাবের ছিলেন বকুল। পছন্দ করতেন খেলাধূলা। খেলতেন ফুটবল ও ক্রিকেট।  স্বপ্ন দেখতেন একদিন সেনাবাহিনীর অফিসার হবেন। কিন্তু তার সে স্বপ্ন পূরণ হয়নি।

অত্যন্ত মেধাবী পরিবারের সন্তান বকুল। ৫ ভাই-বোনের (দুই ভাই ও তিন বোন) মধ্যে তিনি বড়। নিজের পরিবারে রয়েছেন তার মেধাবী স্ত্রী। পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত রয়েছেন তিনি। তাদের আলভান আজওয়াদ ও ইলমা নামের এক পুত্র ও এক কন্যা সন্তান রয়েছে। 

১৯৮৫ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়েই ফজলুল হক হলে ছাত্রদল কর্মী হিসেবে ছাত্র রাজনীতি শুরু করেন বকুল। এরপর হল কমিটির সহ-সভাপতি, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের প্রচার সম্পাদক, ফজলুল হক হল শাখা ছাত্রদলের নির্বাচিত জিএস, ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদের দুইবারের সহ-সভাপতি হন তিনি। পরবর্তীতে ২০০১ সালে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে দায়িত্ব পালন করেন। সেখান থেকেই হয়ে উঠেন বিএনপির বর্তমান ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের আস্থাভাজন, বিশ্বাসের পাত্র। দীর্ঘ সময় পরে ২০১৮ সালের একাদশ সংসদ নির্বাচনে ধানের শীষের প্রার্থী হন খুলনা-৩ আসন থেকে।

বকুল ২০১৮ সালে খুলনা-৩ আসন থেকে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করলেও তার অনেক আগে থেকেই খুলনার গরিব-অসহায় মানুষের জন্য কাজ করছেন। ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সব সম্প্রদায়ের উৎসবেই গরিব-অসহায় মানুষের মাঝে কাপড় ও নগদ অর্থ বিতরণ করেন। আর মহামারি করোনার শুরু থেকেই খুলনার অসহায় মানুষের পাশে বন্ধুর মতো দাঁড়িয়েছেন তিনি। ‘বকুল করোনা সাপোর্ট সেন্টার’র মাধ্যমে করোনা রোগীদের অক্সিজেন সিলিন্ডার সরবরাহ করা হচ্ছে। দিনে-রাতে যেকোনো সময় ফোন দিলেই সেন্টারের স্বেচ্ছাসেবীরা রোগীদের বাসায় গিয়ে অক্সিজেন সিলিন্ডার পৌঁছে দিচ্ছেন। পাশাপাশি বিতরণ করা হচ্ছে মাস্কসহ করোনা সুরক্ষা সামগ্রী। এছাড়া লকডাউনসহ বিভিন্ন সময় বকুলের পক্ষ থেকে ত্রাণ ও রান্না করা খাবার বিতরণ করা হয়েছে, যা এখনো অব্যাহত রয়েছে।
 


আরও পড়ুন