সাভারের চামড়া শিল্প নগরীতে ভোক্তা অধিকারের অভিযান

Online Desk Online Desk
প্রকাশিত: ০১:৪৮ পিএম, ০২ আগষ্ট ২০২০

কোরবানির পশুর চামড়া সরকার নির্ধারিত মূল্যে কেনা-বেচা ও সঠিক প্রক্রিয়ায় সংরক্ষণ করা হচ্ছে কিনা তা তদারকি করতে অভিযান চালাচ্ছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। 

 ঢাকার অদূরে সাভারের হেমায়েতপুর চামড়া শিল্প নগরীতে রোববার (২ আগস্ট) সকালে এ অভিযান চালানো হয়। অভিযান পরিচালনা করছেন অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক আব্দুল জব্বার মন্ডল ও মাগফুর রহমান।
এবার গত বছরের তুলনায় সর্বোচ্চ ২৯ ভাগ কমিয়ে কোরবানির পশুর চামড়ার দাম নির্ধারণ করেছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। ঢাকায় লবণযুক্ত প্রতি বর্গফুট গরুর চামড়া ৩৫-৪০ টাকা, ঢাকার বাইরে ২৮-৩২ টাকা নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছে। গত বছর ঢাকায় প্রতি বর্গফুট চামড়ার মূল্য ছিল ৪৫-৫০ টাকা এবং মফস্বলে ৩৫-৪০ টাকা। সারা দেশে খাসির চামড়ার মূল্য ধরা হয়েছে এবার ১৩-১৫ টাকা, গত বছর ছিল ১৮-২০ টাকা। বকরির চামড়া ১০-১২ টাকা, যা গত বছর ছিল ১৩-১৫ টাকা।
সরকার চামড়ার দাম নির্ধারণ করে দিলেও বাস্তবে দেখা গেছে ভিন্ন চিত্র। এবারও কোরবানির চামড়ার বাজারে বড় ধরনের ধস নেমেছে। খোদ রাজধানীতে প্রতি পিস গরুর চামড়া কেনা-বেচা হয়েছে মাত্র ২০০ থেকে ৪০০ টাকায়, যা সরকার নির্ধারিত দামের চেয়ে অনেক কম।
অভিযানের বিষয়ে আব্দুল জব্বার মন্ডল জানান, অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বাবলু কুমার সাহার নির্দেশনায় আমরা সাভারের চামড়া শিল্প নগরীতে কাঁচা চামড়া সংরক্ষণ প্রক্রিয়া তদারকি করছি। এখানে মূলত চামড়া সঠিক প্রক্রিয়ায় লবণ দিয়ে সংরক্ষণ করা হচ্ছে কিনা এটি দেখা হচ্ছে। এছাড়া সরকার নির্ধারিত মূল্যে চামড়া কেনা-বেচা হচ্ছে কিনা তাও দেখা হচ্ছে। এখন পর্যন্ত যেসব আড়তে গিয়েছি সব জায়গায় সঠিক নিয়মে সংরক্ষণ করতে দেখা গেছে। তবে কোনো অনিয়ম বা অভিযোগ পেলে আমরা আইন অনুযায়ী শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেব।


আরও পড়ুন