ছোট ছোট ভুলেই নষ্ট হয় দাম্পত্য সম্পর্ক!

প্রকাশিত: মে ০৮, ২০২২, ১২:৩৯ দুপুর
আপডেট: মে ০৮, ২০২২, ১২:৩৯ দুপুর
আমাদেরকে ফলো করুন

লাইফস্টাইল ডেস্ক:  যে কোনও সম্পর্কের পরিণতি হল বিয়ে। এক্ষেত্রে দুটি মানুষ এরপর থেকে সামাজিকভাবে একসঙ্গে থাকতে শুরু করেন। তাদের শুরু হয় নতুন জীবন।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, লাভ হোক বা অ্যারেঞ্জ, বিয়ের পর জীবন একটু অন্য মোড় নেয়। তাই প্রত্যেকটি মানুষকেই বিয়ের পর থাকতে হয় সচেতন। কারণ বিয়ের পর দেখা দেয় নতুন নতুন চ্যালেঞ্জ। এই সময়ে হঠাৎ করেই দুটি মানুষ একসঙ্গে থাকতে শুরু করেন। আগে পরিচয় থাকলেও এভাবে একসঙ্গে থাকার অভ্যাস তাদের কোনও দিনও ছিল না। ফলে এই নতুন জীবনে মানিয়ে নিতে সামান্য সময় লাগতে পারে।

বিয়ের পরের জীবনে প্রতিটি মানুষকেই ভীষণ সতর্ক থাকতে হয়। তাদের নিজেদের মধ্যে মানিয়ে গুছিয়ে চলতে হয়। পছন্দ-অপছন্দ সবই চলে আসে এই তালিকায়। তাই আপনাকে অবশ্যই এই বিষয়টি নিয়ে ভাবতে হবে।

তবে অনেক ক্ষেত্রেই দেখা যায় মানুষ না চাইতেও ছোটখাট এমন সব ভুল করে বসেন যা সম্পর্ককে তলানিতে নামিয়ে দিতে পারে। তাই সতর্ক থাকা ছাড়া কোনও গতি নেই।

কথা না বলা:  অনেক সময় দম্পতি একে উপরের রাগ করতেই পারেন। তবে সেই কারণে যদি কথাই বন্ধ করে দেন তবে ভারী মুশকিল! তাই কথা না বলার অভ্যাস চলবে না। বরং সমস্যা হলে কথা বলেই মুশকিল আসান করুন। দেখবেন ভালো আছেন।

নিজেদের সমস্যার কথা আলোচনা না করা:  নতুনভাবে বাঁচতে শুরু করেছেন। এই নতুন জীবনে নানা ধরনের সমস্যা হওয়া খুবই স্বাভাবিক। সেক্ষেত্রে কোনও সমস্যা হলে অবশ্যই অন্য মানুষটিকে জানান। কোথায়, কেন, কী ভাবে সমস্যা হচ্ছে তা জানানো দরকার। আপনি জানাতে পারলেই তো হবে সমস্যার সমাধান। নইলে এভাবে জীবন কাটানো হবে দায়। তাই এই বিষয়টিকে অবশ্যই মাথায় রাখুন।

মাঝেমাঝেই ঝামেলা: ছোটখাট কথা কাটাকাটি হতেই পারে। তবে তাই বলে রুদ্ধশ্বাসে ঝামেলা হওয়া কোনওভাবেই উচিত নয়। এক্ষেত্রে রোজ রোজ ঝামেলা হলে দাম্পত্য ভেঙে যাওয়ার অশঙ্কা থাকে। এক্ষেত্রে নিজেদের মধ্যে বন্ডিং তৈরি করুন। দেখবেন অনেক সমস্যার হয়েছে সমাধান।

মনে আঘাত দেওয়া: অনেকেরই অভ্যাস রয়েছে কথায় কথায় মনে আঘাত দিয়ে কথা বলার। তারা বুঝতে পারেন না সামনে থাকা মানুষটির এরফলে ঠিক কেমন অবস্থা হয়। তাই মনে আঘাত দেওয়ার অভ্যাস আজই দূর করুন। বরং কথা বলুন ভালোবেসে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়