ফেইস মিস্ট ত্বকের আর্দ্রতা রক্ষা করে.....

Online Desk Aminul Online Desk Aminul
প্রকাশিত: ০৭:০০ পিএম, ১৪ নভেম্বর ২০২১

লাইফস্টাইল ডেস্ক: ফেইস মিস্ট ব্যবহারে ত্বকের আর্দ্রতা রক্ষা হয়। পাশাপাশি উজ্জ্বল ভাব ধরে রাখতে সহায়তা করে। ভারতের ‘লাভিশে বাথ এসেনশল’য়ের প্রতিষ্ঠাতা কিটু পাহুজা, সারাদিন ত্বককে সতেজ রাখতে ফেইস মিস্ট ব্যবহারের পরামর্শ দেন।
পাহুজা কয়েকটি আর্দ্রতা রক্ষাকারী ফেইস মিস্ট ব্যবহারের পরামর্শ দেন যা ত্বকের যত্নে ব্যবহারে ভালো ফলাফল দেয়।
গোলাপের ফেইস মিস্ট: গোলাপ ত্বকের জন্য উপকারী। গোলাপের ফেইস মিস্টে রয়েছে গোলাপের তেল যা ত্বককে শীতল করে।
পাহুজা বলেন, “তৈলাক্ত ও চিটচিটে ত্বকের জন্য গোলাপের ফেইস মিস্ট খুব ভালো কাজ করে। ত্বককে ময়লা, তেল এবং ঘাম থেকে সুরক্ষিত রাখে এবং ভেতর ও বাইরে থেকে সুরক্ষিত রাখতে সহায়তা করে।”
অ্যালো নিম ফেইস মিস্ট: ত্বক শুষ্ক, রুক্ষ, সংবেদনশীল এবং ব্রণ প্রবণ হলে অ্যালো নিম ফেইস মিস্ট আশীর্বাদ স্বরূপ। অ্যালোভেরা এবং নিম ত্বককে মসৃণ করে এবং ত্বকের প্রদাহ ও সংবেদনশীলতা কমায়। এগুলোর অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল যৌগ সংবেদনশীল ত্বকের জন্য উপকারী। ত্বক আর্দ্র রাখতে, ব্রণ ও মলিনভাব কমাতে এই মিস্ট উপকারী।  
হলুদের ফেইস মিস্ট: হলুদ অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ। এতে থাকা কারকিউমিন সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মির কারণে হওয়া ক্ষয় ও ত্বকের রোদপোড়া ভাব কমাতে এবং বর্ণ উজ্জ্বল করতে সহায়তা করে। কয়েক ফোঁটা গ্লিসারিন এবং গোলাপ জল হলুদের সঙ্গে মিশিয়ে ফেইস মিস্ট তৈরি করা যায়। এটা তৈলাক্ত ও সংবেদনশীল ত্বকের জন্য উপকারী।
নারিকেলের ফেইস মিস্ট: ত্বককে আরাম দিতে, মলিনভাব কমাতে নারিকেলের মিস্ট উপকারী। এটা যে কোনো মৌসুমেই ব্যবহার করা যায়। ত্বককে শীতল রাখার পাশাপাশি, পিএইচ’য়ের ভারসাম্য বজায় রাখে এবং উজ্জ্বল ভাব আনে। এর সঙ্গে যে কোনো এসেনশল তেল মেশালে শীতকালে ভালো ফলাফল পাওয়া যাবে।
কমলা লেবুর ফেইস মিস্ট: সিট্রাস বা টকজাতীয় ফলে আছে ভিটামিন সি এবং ই, যা ত্বক সতেজ রাখতে সহায়তা করে। কয়েক ফোঁটা কমলা এবং লেবুর রসের সঙ্গে এসেনশল তেল এবং অ্যালোভেরা জেল বা গোলাপ জলের তৈরি ফেইস মিস্ট ত্বকের আর্দ্রতা রক্ষার পাশাপাশি উজ্জ্বল ভাব আনে। লেবু ত্বককে শুদ্ধ করে এবং চোখের চারপাশের দাগছোপ কমায়। কমলা ত্বকে সতেজভাব আনে ও পরিষ্কার রাখে।
এছাড়াও এটা ত্বকের তেল নিঃসরণ কমায়, ত্বকের তৃষ্ণা কমায় এবং দাগছোপ কমায়। তাই ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে ও সুস্থ রাখতে এমন ফেইস মিস্ট ব্যবহারের পরামর্শ দেন পাহুজা।  ফেইস মিস্ট সব ধরনের ত্বকের জন্যই উপকারী। রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে বা সকালে ঘুম থেকে উঠে অথবা মেইক আপ করার আগে এমনকি দিনের যে কোনো সময়েই ফেইস মিস্ট মুখে স্প্রে করে আরাম অনুভব করা যায়।