১৮ মাস স্বামীর লাশ রেখেছেন ঘরে দিতেন গঙ্গাজল 

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২২, ০৯:২০ রাত
আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২২, ০৯:২০ রাত
আমাদেরকে ফলো করুন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :  স্বামী আয়কর বিভাগের কর্মচারী ছিলেন। গত বছরে মারা যান। কিন্তু মৃত ব্যক্তির পরিবার তার লাশ ১৮ মাস ধরে বাড়িতেই রেখে দেন। এই ঘটনা ভারতের। দেশটির কর্মকর্তারা বলেন, মৃত ব্যক্তির স্ত্রী মানসিক সমস্যায় ছিলেন। তিনি প্রতিদিন সকালে ওই মৃতদেহে গঙ্গাজল ছিটাতেন। আশা করতেন, এতে কোমা থেকে তিনি জেগে উঠবেন।

কানপুরের পুলিশ এক বিবৃতিতে বলেছে, একটি প্রাইভেট হাসপাতাল দীক্ষিতের ডেথ সার্টিফিকেট ইস্যু করা হয়। সেখানে বলা হয়, তিনি ২০২১ সালের ২২ এপ্রিল কার্ডিয়াক রেসপিরেটরি সিন্ড্রোমে মারা যান। গত শুক্রবার যখন একদল মেডিক্যাল দল পুলিশ ও ম্যাজিস্ট্রেটের সঙ্গে রাওয়াতপুরে দীক্ষিতের বাড়িতে যায়, তার পরিবার জোর দিয়ে বলে, দীক্ষিত কোমায় জীবিত আছেন। এরপর অনেক বোঝানোর পর পরিবার দীক্ষিতের লাশ লালা লাজপাত রাই হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার অনুমতি দেয়। সেখানে মেডিক্যাল পরীক্ষার পর তাকে মৃত ঘোষণা করা হয়।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়