করাচিতে হোমওয়ার্ক না করায় ছেলেকে পুড়িয়ে মেরে ফেলল বাবা

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২১, ২০২২, ০৪:৩৭ দুপুর
আপডেট: সেপ্টেম্বর ২১, ২০২২, ০৪:৩৭ দুপুর
আমাদেরকে ফলো করুন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : স্কুলের হোমওয়ার্ক না করার কারণে নিজের ১২ বছর বয়সী ছেলের শরীরে আগুন ধরিয়ে দিলো বাবা। ঘটনাটি ঘটেছে পাকিস্তানের করাচির ওরাঙ্গি শহরে। গত ১৪ সেপ্টেম্বর খেলার জন্য বায়না ধরেছিল ছেলে শাহির। এসময় তার বাবা নাজির ছেলের স্কুলের হোমওয়ার্ক দেখতে চায়। ছেলের খাতায় হোমওয়ার্ক দেখতে না পেরে ক্ষেপে যায় ওই বাবা।

পরেই ছেলের গায়ে কেরোসিন তেল ছিটিয়ে আগুন লাগিয়ে দেয় সে। এরপর প্রথমেই তাকে কাতার হাসপাতালে নেয়া হলে সেখান থেকে সিভিল হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে রেফার করা হয়। সেখানেই ৩৬ ঘণ্টা জীবন-মৃত্যুর সাথে লড়াই করার পর মারা যায় ছোট্ট শাহির। শাহিরের মৃত্যুর দুইদিন পর স্বামীর বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা করেন শাহিরের মা।

অভিযোগের পর অভিযুক্ত বাবাকে গ্রেফতার করে করাচি পুলিশ। বাবা নাজিরের ভাষ্য অনুযায়ী, গত কিছুদিন ধরে পড়াশোনায় অমনোযোগী ছিল শাহির। যাতে সে পড়াশোনা করে তাই তাকে ভয় দেখাতে শরীরে কেরোসিন তেল ছিটিয়ে দিয়ে পরে ম্যাচে কাঠি ঠোকাতেই দুর্ঘটনাবশত ছেলে শাহিরের শরীরে আগুন লেগে যায়। এরপর ছেলেকে নিয়ে হাসপাতালে যায় সে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়