উদ্বোধনের আর মাত্র
০০
দিন
০০
ঘণ্টা
০০
মিনিট
০০
সেকেন্ড

মৃত্যুর এক বছর পরেও মর্গে জন ম্যাকাফির লাশ

প্রকাশিত: জুন ২৪, ২০২২, ১২:০৬ দুপুর
আপডেট: জুন ২৪, ২০২২, ১২:০৬ দুপুর
আমাদেরকে ফলো করুন

বিশ্বখ্যাত অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার ম্যাকাফির উদ্যোক্তা জন ম্যাকাফির লাশ গত এক বছর ধরে পড়ে আছে স্পেনের একটি মর্গে। স্প্যানিশ কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ম্যাকাফির মৃত্যুর কারণ নিয়ে আইনি জটিলতা থাকায় দীর্ঘদিন ধরে তার মরদেহ মর্গেই পড়ে আছে।

আশির দশকে অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার বাজারে আনেন জন ম্যাকাফি। ধীরে ধীরে তার অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যারের কদর বাড়ার সুবাদে বেড়েছিল তার সম্পত্তিও। সফটওয়্যার জগতের অন্যতম ধনী ব্যক্তিদের তালিকায় স্থান পায় ম্যাকাফির নাম।

২০২১ সালের ২৩ জুন স্পেনের একটি কারাগারের সেলে তার মরদেহ পাওয়া যায়। ২০২০ সালে নিউইয়র্কে ক্রিপ্টোকারেন্সি জালিয়াতির মামলা, টেনেসিতে কর ফাঁকির অভিযোগ ছাড়াও প্রতিবেশীকে খুনের মতো গুরুতর অভিযোগও ছিল তার বিরুদ্ধে। গ্রেফতার এড়াতে যুক্তরাষ্ট্র ছাড়লেও ২০২০ সালের অক্টোবরে বার্সেলোনা এয়ারপোর্ট থেকে গ্রেফতার করা হয় ম্যাকাফিকে। ২০২১ সালের জুনে তাকে স্পেন থেকে যুক্তরাষ্ট্রে প্রত্যার্পণের অনুমতি দেয়ার পর জেল হেফাজতে মৃত্যু হয় তার।

কারা কর্তৃপক্ষের মতে, আত্মহত্যা করেছিলেন ম্যাকাফি। তবে ম্যাকাফির স্ত্রীর দাবি, সে আত্মহত্যা করার লোক না। আমি তার মৃত্যুর আসল কারণ জানতে চাই।

এরমধ্যেই পুনরায় লাশ ময়নাতদন্তের অনুরোধ জানিয়েছিল ম্যাকাফির পরিবার। কিন্তু বার্সেলোনার স্থানীয় আদালত সে দাবি প্রত্যাখ্যান করায় নিম্ন আদালতের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করেন ম্যাকাফির পরিবারের সদস্যরা। তাদের এ আপিলের পর আদালত জানিয়েছে, নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত ম্যাকাফির মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা যাবে না।

বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) প্রথম মৃত্যুদিবসে ম্যাকাফির স্ত্রী জেনিস এক টুইট পোস্টে লেখেন, গত বছর জীবন কেমন ছিল তা ভাষায় প্রকাশ করা কঠিন। টুইটে ম্যাকাফির দেহাবশেষ হস্তান্তরের জন্য স্পেন কর্তৃপক্ষকে চাপ দিতে একটি অনলাইন পিটিশনের আহ্বান জানান তিনি।

 

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়