১১ রাজ্যে অগ্নিপথ বিক্ষোভ, পিছু হটছে মোদি সরকার

প্রকাশিত: জুন ১৯, ২০২২, ০৮:৪৪ রাত
আপডেট: জুন ১৯, ২০২২, ০৮:৪৪ রাত
আমাদেরকে ফলো করুন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভারতের ১১টি রাজ্যে ছড়িয়ে পড়েছে অগ্নিপথ বিক্ষোভ। বিক্ষোভের তৃতীয় দিন শনিবার চাপের মুখে কিছুটা পিছু হটেছে দেশটির কেন্দ্রে থাকা নরেন্দ্র মোদি সরকার। বিক্ষোভের জেরে বদলে গেছে অগ্নিপথ প্রকল্পে নিয়োগের শর্ত।

অগ্নিবীরদের জন্য আরও চার দফা সুবিধার কথা ঘোষণা করেছে কেন্দ্র। তবে এতেও বিক্ষোভ থেমে নেই। শনিবারও বিহার রাজ্যে রেলস্টেশনে হামলা হয়েছে; রেললাইন অবরোধের মুখে বাতিল হয় ৩৬৯টি ট্রেনযাত্রা। এর আগে শুক্রবার বিক্ষোভকারীরা বিভিন্ন স্থানে ট্রেনে অগ্নিসংযোগ করে। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়া ও এনডিটিভির।

আন্দোলনের প্রেক্ষাপটে গত শুক্রবার ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ঘোষণা করে, কেন্দ্রীয় সশস্ত্র পুলিশ বাহিনী এবং আসাম রাইফেলসে নিয়োগের ক্ষেত্রে অগ্নিবীরদের জন্য ১০ শতাংশ আসন সংরক্ষিত থাকবে। এর পাশাপাশি, অগ্নিবীরদের প্রথম ব্যাচের জন্য ৫ এবং পরবর্তী ব্যাচগুলোর জন্য ৩ বছর বয়স ছাড়ের কথা জানায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

গতকাল শনিবার ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংও তার মন্ত্রণালয়ের ১০ শতাংশ চাকরি অবসরপ্রাপ্ত অগ্নিবীরদের জন্য সংরক্ষিত রাখার ঘোষণা দেন। গত বৃহস্পতিবার ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার জানায়, আজীবন 'অগ্নিবীর' পরিচয় বহন করতে পারবেন নিয়োগপ্রাপ্তরা।

গত মঙ্গলবার রাজনাথ সিং ভারতের সশস্ত্র বাহিনীর তিন শাখার প্রধানদের সঙ্গে বৈঠকের পর জানান, সাড়ে ১৭ থেকে ২১ বছরের তরুণ-তরুণীদের অগ্নিবীর হিসেবে নিয়োগ করা হবে। এর জেরেই গত বুধবার সকালে বিহারে শুরু হয় আন্দোলন।

বিক্ষোভকারীদের অভিযোগ ছিল, ভারতীয় সেনায় সাধারণভাবে কর্মকর্তা এবং জওয়ান নিয়োগের বয়স ১৮ থেকে ২৫ বছর। নতুন বয়সসীমায় অনেক যুবকই কাজের সুযোগ হারাবেন। তা ছাড়া, করোনা আবহে দুই বছর সেনায় নিয়োগ বন্ধ থাকায় চাকরিপ্রার্থীদের বয়স বেড়েছে। ফলে অনেকেরই আর সশস্ত্র বাহিনীতে যোগদানের স্বপ্নপূরণ হবে না।

বুধবার রাতে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় প্রথম ব্যাচে অগ্নিবীর নিয়োগের ঊর্ধ্বসীমা ২১ থেকে বাড়িয়ে ২৩ করার কথা ঘোষণা করে। এ প্রকল্পে নিয়োগ প্রাপ্তদের ৭৫ শতাংশকেই চাকরি পাওয়ার চার বছরের মধ্যে অবসর নিতে হবে। এককালীন কিছু টাকা মিললেও থাকবে না পেনশনের ব্যবস্থা।

শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের আবেদন সোনিয়ার: অগ্নিপথ আন্দোলন শান্তিপূর্ণভাবে করতে যুবকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন কংগ্রেসনেত্রী সোনিয়া গান্ধী। এক লিখিত বিবৃতিতে শনিবার তিনি অগ্নিপথ প্রকল্পকে 'দিশাহীন' বলেও মন্তব্য করেন। কোভিড-পরবর্তী শারীরিক জটিলতার কারণে বর্তমানে দিল্লির একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন সোনিয়া।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়