১১ বছর আইনি লড়াই, অবশেষে বাড়িতে এলো বিদ্যুৎ

প্রকাশিত: জানুয়ারী ২৬, ২০২২, ০৯:১৯ রাত
আপডেট: জানুয়ারী ২৬, ২০২২, ০৯:১৯ রাত
আমাদেরকে ফলো করুন

প্রতিবেশীসহ এলাকার সবার বাড়িতে বিদ্যুৎ রয়েছে। শুধু খোকন কুমার মাইতির বাড়িতেই বিদ্যুৎ নেই। তাও এক-দুই বছর নয়, দীর্ঘ ১১ বছর ধরে বিদ্যুৎ বঞ্চিত। বিভিন্ন সরকারি দপ্তরে ধর্না দিয়েও নাগরিকের ‘মৌলিক অধিকার’ থেকে বঞ্চিত ছিলেন তিনি।
শেষপর্যন্ত কলকাতা হাইকোর্টের হস্তক্ষেপে বিদ্যুৎ সংযোগ পেতে চলেছেন কুমার মাইতি। ঘটনাটি ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের পূর্ব মেদিনীপুরের কাঁথির উত্তর বাদলপুর গ্রামে।
হাইকোর্টের বিচারপতি সব্যসাচী ভট্টাচার্য নির্দেশ দিয়েছেন, তিন সপ্তাহের মধ্যে ওই ব্যক্তির বাড়িতে বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে। বিদ্যুৎ দিতে গিয়ে বাধার সৃষ্টি হলে পুলিশের সাহায্য নেওয়ার কথা বলেন বিচারপতি।
আদালত তার পর্যবেক্ষণে বলেছেন, যতই মামলা-মোকদ্দমা থাকুক না কেন, সংবিধানের অধিকার অনুযায়ী বিদ্যুৎ অত্যাবশ্যকীয় পণ্য। তাই মামলাকারীর বিদ্যুৎ সংযোগ পাওয়ার অধিকার রয়েছে।
আদালত আরও বলেন, বিদ্যুৎ সংযোগ পাওয়া একজন নাগরিকের মৌলিক অধিকার। তাকে সেই অধিকার থেকে বঞ্চিত করা যায় না।
ভুক্তভোগীর আইনজীবী শমীক বাগচী জানান, ২০১১ সাল থেকে তার মক্কেল বিদ্যুৎ সংযোগের জন্য লড়াই করে আসছেন। পশ্চিমবঙ্গ বিদ্যুৎ বণ্টন সংস্থাসহ বিভিন্ন দপ্তরে আবেদন করেও কোনো লাভ হয়নি। প্রতিবেশীদের বাধার কারণ দেখিয়ে বিদ্যুৎ বণ্টন সংস্থা সংযোগ দিতে অস্বীকার করেছিল। তাই বাধ্য হয়ে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন তিনি। সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়