অবশেষে জানা গেলো বিপিন রাওয়াতের হেলিকপ্টার বিধ্বস্তের কারণ

Online Desk Asa Moni Online Desk Asa Moni
প্রকাশিত: ০৩:০২ পিএম, ১৫ জানুয়ারি ২০২২

ভারতের প্রতিরক্ষাপ্রধান বিপিন রাওয়াতকে বহনকারী সামরিক হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হওয়ার কারণ জানিয়েছে দেশটির বিমান বাহিনী। শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) এক বিবৃতিতে ভারতীয় বিমান বাহিনী জানিয়েছে, উপত্যকায় অপ্রত্যাশিতভাবে আবহাওয়ার পরিবর্তনে মেঘের মধ্যে হেলিকপ্টার ঢুকে যেতেই দুর্ঘটনা ঘটেছে। পাইলটের বিভ্রান্তিবোধ তথা ‘স্প্যাটিয়াল ডিসওরিয়েন্টেশন’র জন্যই এ দুর্ঘটনা ঘটেছে।
তদন্ত কমিটির প্রতিবেদেন বলা হয়েছে, ‘প্রাথমিক অনুসন্ধানে আমরা জানতে পেরেছি, সেদিন উপত্যকার আবহাওয়ায় অপ্রত্যাশিত পরিবর্তন ঘটেছিল। আকাশে প্রচুর মেঘ ছিল এবং হেলিকপ্টারটি মেঘের মধ্যে প্রবেশ করার পর পাইলট বিভ্রান্ত হয়ে পড়েছিলেন। এ কারণেই হেলিকপ্টারটি ভেঙে পড়ে।’
এ বিষয়ে বিস্তারিত তদন্তের অবকাশ এখনও রয়ে গেছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে প্রতিবেদনে।
গত ৮ ডিসেম্বর বেলা ১১ টা ৪৫ মিনিটে তামিলনাড়ুর কোইম্বাটোর জেলার সুলুর শহরে ভারতের বিমান বাহিনীর ঘাঁটি থেকে থেকে রাজ্যের নীলগিরি পার্বত্য এলাকার ওয়েলিংটন শহরের দিকে যাচ্ছিল চপার হেলিকপ্টারটি। সেই সময় হেলিকপ্টারটিতে বিপিন রাওয়াত, তার স্ত্রী মধুলিকা রাওয়াতসহ ১১ জন সেনা কর্মকর্তা ছিলেন।
ওয়েলিংটনে ভারতের সেনাবাহিনীর ডিফেন্স সার্ভিস স্টাফ কলেজের প্রধান হিসেবে কর্মরত ছিলেন রাওয়াত।
ভারতে সাড়া ফেলা এ দুর্ঘটনা তদন্তকারী দলের নেতৃত্বে রয়েছেন এয়ার মার্শাল মানবেন্দ্র সিং। দুর্ঘটনার কারণ হিসেবে যান্ত্রিক ত্রুটি, নাশকতা বা অবহেলার বিষয়গুলো আগেই বাতিল করেছিলেন তদন্তকারীরা।
৬৩ বছর বয়সী সাবেক সেনাপ্রধান বিপিন রাওয়াত ২০১৯ সালের জানুয়ারিতে ভারতের প্রথম চিফ অব ডিফেন্স স্টাফের দায়িত্ব গ্রহণ করেন। দেশটির সেনা, নৌ ও বিমানবাহিনীকে সমন্বয় করার জন্য এ পদ সৃষ্টি করা হয়েছিল। প্রতিরক্ষামন্ত্রীর প্রধান সামরিক উপদেষ্টার ভূমিকাও পালন করছিলেন তিনি। পাশাপাশি দেশটির রাজনৈতিক নেতৃত্বের পরামর্শকের ভূমিকায়ও ছিলেন বিপিন রাওয়াত।