তরুণের জিহ্বা কেটে নিলেন দুই নারী

Online Desk Aminul Online Desk Aminul
প্রকাশিত: ০৩:০৬ পিএম, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১

ভারতে এক তরুণের জিহ্বা কেটে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে দুই নারীর বিরুদ্ধে।
পশ্চিমবঙ্গের বোলপুরে শান্তিনিকেতন থানা এলাকায় সোমবার রাতে এ ঘটনা ঘটেছে। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।
২০ বছরের ওই তরুণ সোমবার রাতে মদপানের আসরে অতিথি হয়ে গিয়েছিলেন তার এক প্রতিবেশীর বাড়িতে।
সেখান থেকেই তাকে জিহ্বা কাটা অবস্থায় উদ্ধার করেন তার এক বন্ধু। ঘটনাচক্রে তিনিও ওই মদের আসরে তরুণের সঙ্গী ছিলেন। তবে ঘটনাটি ঘটে তার চোখের আড়ালে।
পুলিশ এ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। তবে তরুণের পরিবারের অভিযোগ— ওই দুই নারী গোপনে তন্ত্রসাধনা করেন। তন্ত্রসাধনার জন্যই তারা জিভ কেটে নিয়েছেন ওই তরুণের।
আহত তরুণের নাম শ্যামাই সোরেন। বোলপুরের শান্তিনিকেতন থানার অন্তর্গত ফুলডাঙা গ্রামে আদিবাসীপাড়ায় বাড়ি তার।
সোমবার রাত ৮টার দিকে শ্যামাই বন্ধু মুকুলের সঙ্গে মদ খেতে গিয়েছিলেন প্রতিবেশী বৃদ্ধা পাকু টুডুর বাড়িতে।
মুকুল জানিয়েছেন, মদের আসরে ওই বৃদ্ধার সঙ্গে ঝগড়া হচ্ছিল শ্যামাইয়ের। এর কিছুক্ষণ পর মুকুল শৌচাগারে যাওয়ার জন্য আসর ছেড়ে বেরিয়ে যান। ফিরে এসে শ্যামাইকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করেন তিনিই।
পুলিশকে মুকুল জানিয়েছেন, ওই বৃদ্ধা এবং তার পরিবারের আরেক নারী সদস্য এই ঘটনার নেপথ্যে রয়েছেন। এমনকি ওই দুজনে তন্ত্রসাধনার জন্য এ কাজ করেছেন বলেও অভিযোগ করেছেন মুকুল। একই অভিযোগ করেছে শ্যামাইয়ের পরিবারও।
সোমবার রাতে এ ঘটনার পর ওই তরুণকে বর্ধমান হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। আঘাত গুরুতর হওয়ায় এসএসকেএম হাসপাতালে রেফার করা হয় তাকে।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, অর্থাভাবে ওই যুবকের পরিবার তাকে কলকাতায় নিয়ে আসতে পারেননি। তাকে বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে যান  ।