নির্বাচনে জালিয়াতি, সু চিসহ ১৬ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ

প্রকাশিত: নভেম্বর ১৬, ২০২১, ০২:১৩ দুপুর
আপডেট: নভেম্বর ১৬, ২০২১, ০২:১৩ দুপুর
আমাদেরকে ফলো করুন

মিয়ানমারের ক্ষমতাচ্যুত বেসামরিক সরকারের প্রধান অং সান সু চিসহ ১৬ জনের বিরুদ্ধে ২০২০ সালের সাধারণ নির্বাচনে জালিয়াতির অভিযোগ আনা হয়েছে। মঙ্গলবার রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমের খবরে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

গত বছরের নভেম্বরে দেশটির সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। সে সময় অং সান সু চি, সাবেক প্রেসিডেন্ট উ উইন মিন্ট এবং সাবেক নির্বাচন কমিশনের প্রধানসহ বেশ কয়েকজন ভোট জালিয়াতি এবং আইন বহির্ভূত কাজের সঙ্গে জড়িত ছিলেন বলে অভিযোগ উঠেছে। ওই নির্বাচনে সু চির দল ন্যাশনাল লীগ ফর ডেমোক্রেসি বিশাল জয় পায়।

রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম গ্লোবাল নিউ লাইট মিয়ানমার এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ৬০ বছরের বেশি বয়সী ভোটারদের অগ্রিম ভোট দেওয়া এবং ব্যালটে ভোট দেওয়ার অধিকার নেই এমন লোকদের নাম অন্তর্ভূক্তসহ বেশ কয়েকটি নির্বাচনী আইন লঙ্ঘনের অভিযোগ আনা হয়েছে এই ১৬ জনের বিরুদ্ধে।

গত ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারের বেসামরিক সরকারকে সরিয়ে ক্ষমতা দখল করে সেনাবাহিনী। সে সময় সু চি কে আটক করা হয়। এরপর থেকেই সু চির ওপর বেশ কিছু অভিযোগ আনা হয়েছে।

সামরিক জান্তা সরকার বলছে, নির্বাচনে জালিয়াতির কারণে তাদের ক্ষমতা গ্রহণ করাটা জরুরি ছিল। নির্বাচন পর্যবেক্ষণ করেছে এমন পর্যবেক্ষক সংস্থাগুলো বলছে, স্বাধীন ও অবাধ নির্বাচন হয়েছে।

মিয়ানমার স্বাধীনতা অর্জনের পর থেকে বেশিরভাগ সময়ই দেশটি শাসন করেছে সেনাবাহিনী। অপরদিকে দেশটির গণতান্ত্রিক নেত্রী হিসেবে পরিচিত অং সান সু চি দীর্ঘদিন ধরেই গৃহবন্দি ছিলেন। এখনও বন্দি জীবনযাপন করছেন সু চি।

সামরিক বাহিনী দেশের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পরের সপ্তাহ থেকেই দেশজুড়ে বিক্ষোভ প্রতিবাদ করে যাচ্ছেন বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ। তবে সামরিক বাহিনী কঠোর হাতে সবকিছু নিয়ন্ত্রণ করছে। সেনাবাহিনীর অভিযানে এখন পর্যন্ত ১ হাজার ২৬০ জন নিহত হয়েছেন। এছাড়া আরও কয়েক হাজার মানুষকে আটক করা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়