ছেলের ভরণপোষণের দায়িত্ব বাড়ল মা-বাবার

Online Desk Online Desk
প্রকাশিত: ০২:১২ এএম, ০৭ মার্চ ২০২১

এখন থেকে ১৮ বছর নয়, ২১ বছর বয়স পর্যন্ত বাবা-মাকে ছেলের ভরণপোষণ নিতে হবে বলে জানিয়ে দিল ভারতীয় সুপ্রিম কোর্ট। এ জন্য স্নাতক স্তরকে শিক্ষার মাপকাঠি হিসেবে রাখা হয়েছে। এই সময় পর্যন্ত ছেলের দেখভাল করতে হবে বাবা-মাকে।

বৃহস্পতিবার (৪ মার্চ) সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি ডিওয়াই চন্দ্রচূড় এবং বিচারপতি এমআর শাহের একটি বেঞ্চ পারিবারিক আদালতের একটি রায়ের পুনর্বিবেচনা করে এমন নির্দেশনা জারি করে। বেঞ্চ জানায়, ১৮ বছর পর্যন্ত ছেলের জন্য আর্থিক ব্যয় যথেষ্ট নয়। কারণ, কলেজ ডিগ্রি তখনও পর্যন্ত পায় না ছেলে। ফলে চাকরি পেতে পারে না তারা। তাই সেই বয়সের সময়সীমাকে ২১ বছর পর্যন্ত বাড়িয়ে দিল দেশটির শীর্ষ আদালত। 

কর্নাটকের এক কর্মচারীকে ছেলের পড়াশোনার ব্যয় বাবদ ২০ হাজার টাকা দিতে  বলে পারিবারিক আদালত। তিনি সেটি দিতে চান না। তারপর সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হন। সেখানে তিনি বলেন, স্ত্রীর বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কের কারণে ২০০৫ সালের জুন মাসে তাদের বিবাহবিচ্ছেদ হয়। তখন তাকে ছেলের ভরণপোষণ নিতে হবে, তা সম্পর্কে অবগত ছিল না। 
এরপর দ্বিতীয়বার বিয়ে করার পর দু’সন্তানের জন্ম দেয় ওই কর্মচারী। তার মাসিক বেতন যা, তার পক্ষে এই টাকা দেওয়া সম্ভব নয়। কিন্তু তার কোনও কথাই শোনেননি সুপ্রিম কোর্ট। সুপ্রিম কোর্টের বেঞ্চ জানিয়েছে, এতে প্রথম পক্ষের সন্তান কী দোষ করল? তার যত্ন নিতে হবে। 

এরপরই বিষয়টি পুনর্বিবেচনা করে সুপ্রিম কোর্ট জানিয়য়েছে, এখন থেকে ১৮ নয়, ২১ বছর পর্যন্ত ছেলের দেখভালের দায়িত্ব নিতে হবে।