ধর্ম সচিব নূরুল ইসলাম করোনায় আক্রান্ত

OnlineDesks OnlineDesks
প্রকাশিত: ০১:৫৭ পিএম, ২৩ আগষ্ট ২০২০

অনলাইন ডেস্ক: করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. নূরুল ইসলাম। গতকাল শনিবার (২২ আগস্ট) তিনি করোনা আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন। সচিবের একান্ত সচিব (পিএস) মো. যুবায়ের আজ রোববার এ তথ্য জানান।


তিনি বলেন, নূরুল ইসলাম কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। শনাক্ত হওয়ার পর শনিবারই তিনি হাসপাতালে ভর্তি হন। আল্লাহর রহমতে তিনি ভালো আছেন, তেমন কোনো জটিলতা নেই। নূরুল ইসলামের এক সন্তান ও স্ত্রী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন বলেও জানান একান্ত সচিব।
চট্টগ্রামে করোনা শনাক্ত
৩২ জনের
অনলাইন ডেস্ক: চট্টগ্রামে ফের কমছে করোনা পরীক্ষা ও শনাক্তের সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষা কমে নেমে এসেছে ৩০০-এর নিচে। ২৯৪টি নমুনা পরীক্ষা করে নতুনভাবে করোনা শনাক্ত হয়েছে মাত্র ৩২ জনের। একই সময়ে করোনা থেকে মুক্ত হয়েছেন আরও ৪১ জন এবং মারা গেছেন দুইজন। আজ রোববার (২৩ আগস্ট) সকালে এসব তথ্য জানান চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি।
তিনি জানান, চট্টগ্রামের পাঁচটি ও কক্সবাজারের একটি ল্যাব মিলে ২৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৩২ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়। যাদের মধ্যে নগরের ২১ জন এবং উপজেলার ১১ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে করোনায় আরও দুজন মারা গেছেন এবং ৪১ জন সুস্থ হয়েছেন। এর মধ্যে ফৌজদারহাটের বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেসে (বিআইটিআইডি) ১২৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। তাতে করোনা শনাক্ত হয় মাত্র তিনজনের। এর মধ্যে দুইজন নগরের বাসিন্দা এবং একজন উপজেলার।

চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ইউনিভার্সিটি (সিভাসু) ল্যাবে গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৭ জনের করোনার নমুনা পরীক্ষা করে নগরের একজনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ল্যাবে ৮২ জনের নমুনা পরীক্ষা করে সর্বোচ্চ ২০ জনের শরীরে করোনাভাইরাস পাওয়া গেছে। এদের মধ্যে নগরের ১২ জন। বাকি আটজন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা।
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ১৬ জনের করোনা নমুনা পরীক্ষা হয়। তাতে চারজনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়। যাদের মধ্যে তিনজন নগরের এবং একজন উপজেলার বাসিন্দা। চট্টগ্রামের বেসরকারি ল্যাব শেভরনে ২৬ জনের নমুনা পরীক্ষায় চারজনের করোনা শনাক্ত হয়। যাদের তিনজন নগরের এবং একজন উপজেলার। কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে ছয়জনের করোনার নমুনা পরীক্ষা করেও কোনো করোনা রোগী পাওয়া যায়নি।
উপজেলা পর্যায়ে নতুনভাবে করোনা শনাক্ত ১১ জনের মধ্যে সবচেয়ে বেশি রোগী শনাক্ত হয় হাটহাজারী উপজেলায়। সেখানে তিনজন করোনা পজিটিভ রোগী পাওয়া যায়। এছাড়া বোয়ালখালী, রাউজান ও সীতাকুন্ডে দুইজন করে এবং চন্দনাইশ ও রাঙ্গুনিয়ায় একজন করে করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে।
সবমিলিয়ে চট্টগ্রামে এখন করোনা রোগীর সংখ্যা ১৬ হাজার ৪৩৭ জন। এর মধ্যে নগরে ১১ হাজার ৬৮২ জন এবং উপজেলায় চার হাজার ৭৫৫ জন। এদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন তিন হাজার ৯০৭ জন এবং করোনার কাছে হার মেনেছেন ২৬১ জন। যাদের মধ্যে নগরের ১৮৩ জন ও উপজেলার ৮০ জন।