বিমানবন্দরে আজই বসছে আরটিপিসিআর ল্যাব: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

Online Desk Saju Online Desk Saju
প্রকাশিত: ০৫:৪২ পিএম, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১


শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) আরটি-পিসিআর মেশিনে করোনা টেস্ট করতে পারবেন প্রবাসীরা। আজকের মধ্যেই অবকাঠামো নির্মাণ কাজ শেষ হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) বিকেলে ল্যাব বসানোর স্থান পরিদর্শন করে এ তথ্য জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী। এই ল্যাব বসলে ২৪ ঘণ্টায় তিন থেকে সাড়ে তিন হাজার নমুনা পরীক্ষা করা যাবে।

বাংলাদেশের অর্থনীতির মুল চালিকা শক্তি রেমিটেন্স। সেটির যোগান দেয় আমাদের প্রবাসী শ্রমিকেরা। কিন্তু মহামারি করোনায় কাজ হারিয়ে দেশে আসেন বহু শ্রমিক। পরিস্থিতি অনেকটা স্বাভাবিক হলে কাজে ফেরার সুযোগ পান তারা।
 
কিন্তু বিমানবন্দরে দ্রুত করোনার টেস্ট করার সুযোগ না থাকায় কয়েকটি দেশের শর্ত ছিলো বসাতে হবে আরটিপিসিআর ল্যাব। দ্রুত কার্যকরের দাবিতে আন্দোলন-বিক্ষোভও করেন প্রবাসীরা। ল্যাব বসানোর দায়িত্ব কারা পাবে, বিমানবন্দরের কোথায় বসবে এই নিয়ে চলে টানাপড়েন।অবশেষে সরকারের উচ্চ পর্যায়ের সিদ্ধান্তের দু সপ্তাহের বেশি সময় পর বৃহস্পতিবার বসছে আরটিপিসিআর ল্যাব।
 
শনিবার থেকে শুরু হবে করোনার টেস্ট। স্বাস্থ্যমন্ত্রী বৃহস্পতিবার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে ল্যাব বসানোর স্থান ঘুরে দেখেন।
 
পরিদর্শন শেষে মন্ত্রী জানান, ৬ টি ল্যাবে বসবে ১২টি মেশিন।
 
তিনি বলেন, সবকিছুই প্রস্তুত হয়ে গেছে। করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকেই বিমানবন্দরে বসবে আরটিপিসিআর ল্যাব। শনিবার থেকে শুরু হবে করোনা টেস্ট। ১২টি ল্যাবের মাধ্যমে প্রতিদিন সাড়ে ৩ হাজার টেস্ট করা যাবে।
 
মন্ত্রীর কাছে প্রশ্ন ছিলো, সম্প্রতি যে শ্রমিকেরা অস্থায়ী ল্যাবে টেস্ট করে দুবাই গেছেন তারা কোনো সমস্যায় পরেছেন কি না?
 
এ প্রসঙ্গে জাহিদ মালেক বলেন, আমার কাছে এই বিষয়ে তেমন কোনো তথ্য নেই। এটা বিমানে যারা আছেন তারাই ভালো বলতে পারবে। এয়ারলাইন্স থেকেও আমি কোনো তথ্য পাইনি। আমরা ধরে নিতে পারি তারা ছাড়া পেয়েছে।
 
আরটিপিসিআর বসাতে সম্প্রতি ৭ টি প্রতিষ্ঠানকে অনুমোদন দেয় সরকার। এদের মধ্যে একটি প্রতিষ্ঠান বাদ পরে। বাকি ৬টি প্রতিষ্ঠান বসাবে আরটিপিসিআর ল্যাব।