ডিসেম্বর থেকে অ্যান্টিজেন পরীক্ষা— আশাবাদ ডা. ফ্লোরার

Online Desk Saju Online Desk Saju
প্রকাশিত: ০৫:০১ এএম, ২৬ নভেম্বর ২০২০

করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) নমুনা পরীক্ষায় আগামী ডিসেম্বর থেকে অ্যান্টিজেন পরীক্ষা চালু করা সম্ভব হতে পারে বলে আশাবাদ জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (গবেষণা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা।

তিনি বলেন, আমরা আগামী সপ্তাহ থেকে অ্যান্টিজেনভিত্তিক পরীক্ষা করার জন্য কর্মীদের প্রশিক্ষণ দিতে শুরু করব। আগামী মাসে (ডিসেম্বর) আমরা এই পরীক্ষা শুরু করতে পারব বলে আশা করছি।

বুধবার (২৫ নভেম্বর) ‘কোভিড-১৯ এবং স্বাস্থ্য বিষয়ক হালনাগাদ তথ্য অবহিতকরণ সভা’ শীর্ষক এক অনুষ্ঠানে এ তথ্য জানান তিনি।

অধ্যাপক ডা. মীরজাদি সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, দেশে সন্দেহভাজন রোগীদের করোনাভাইরাস শনাক্তে আরটি-পিসিআর টেস্টের পাশাপাশি অ্যান্টিজেন পরীক্ষাও করা হবে। আগামী মাস থেকেই দেশের ১০টি জেলায় এ কার্যক্রম শুরু করা হবে। যেসব জেলায় আরটি-পিসিআর পরীক্ষার সুযোগ নেই, সেসব জেলায় অ্যান্টিজেন পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হবে।

অ্যান্টিজেন পরীক্ষা দেরিতে শুরু হওয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, অ্যান্টিজেনের কোন কিটটি সবচেয়ে ভালো বা কার্যকর, সেটি নিশ্চিত না হওয়ায় অ্যান্টিজেন পরীক্ষা শুরু করতে দেরি হচ্ছে। যদিও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা অনুমোদিত দু’টি কিটের কার্যকারিতা পরীক্ষা এরই মধ্যে সম্পন্ন হয়েছে।

তিনি বলেন, আরটি-পিসিআর পরীক্ষার ব্যবস্থা নেই— এমন ১০টি জেলায় এই কার্যক্রম শুরু করা হবে। তবে সন্দেহজনক রোগী অ্যান্টিজেন পরীক্ষায় পজিটিভ না হলে তাকে অবশ্যই পিসিআর পরীক্ষা করতে হবে।

ঠিক কবে থেকে অ্যান্টিজেনভিত্তিক করোনা পরীক্ষা শুরু হতে পারে?— সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে সঠিক কোনো তারিখ বলতে পারেননি তিনি। তবে ডিসেম্বরেই এই পরীক্ষা শুরু করা সম্ভব হলে বলে জানিয়েছেন তিনি।

অ্যান্টিজেন পরীক্ষার কিট আমদানি করা হয়েছে কি না— সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে অধ্যাপক ফ্লোরা বলেন, আমাদের কিছু কিট আছে এবং শিগগিরই আরও কিট আনা হবে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম। সভায় বিভিন্ন বিষয়ে তথ্য উপাত্ত তুলে ধরেন অধিদফতরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার অধ্যাপক ডা. শাহনীলা ফেরদৌসী, হাসপাতাল শাখার পরিচালক ডা. মো. ফরিদ হোসেন মিয়া; রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের পরিচালক প্রফেসর ডা. তাহমিনা শিরিন; এমআইএস শাখার পরিচালক ডা. মো. হাবিবুর রহমান; মা, নবজাতক, শিশু ও কিশোরী স্বাস্থ্য কর্মসূচির লাইন ডিরেক্টর ডা. মো. শামসুল হকসহ অন্যান্যরা।

সভার শুরুতে কোভিড-১৯ তথ্য ব্যবস্থাপনা ও ই-সেবার ওপর তথ্য উপস্থাপন করেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের সেন্ট্রাল ফর মেডিক্যাল বায়োটেকনোলজি বিভাগের ডেপুটি প্রোগ্রাম ম্যানেজার ডা. মারুফুর রহমান অপু। সভায় উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় ঔষধাগারের (সিএমএসডি) পরিচালক আবু হেনা মোরশেদ জামান ও অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।