রেফারির ভুলের শিকার আর্জেন্টিনা!

Online Desk Saju Online Desk Saju
প্রকাশিত: ০৪:০৫ পিএম, ১৫ নভেম্বর ২০২০

পেরিয়ে গেছে ২৪ ঘণ্টা। কিন্তু প্যারাগুয়ের বিরুদ্ধে ভিএআর প্রযুক্তিতে গোল বাতিলের সিদ্ধান্ত মেনেই নিতে পারছে না আর্জেন্টিনা। স্বয়ং লি‌ওনেল মেসিই মনে করছেন, রেফারির ভুল সিদ্ধান্তের শিকার হয়েছেন তারা। কাকতালীয় হলেও ঘটনা হচ্ছে, আর্জেন্টিনিয় শিবিরের তোপের মুখে পড়েছেন এক ব্রাজিলিয়ান রেফারি।

গত শুক্রবার বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে আর্জেন্টিনা বনাম প্যারাগুয়ে ম্যাচের রেফারি ছিলেন ব্রাজিলের রাফায়েল ক্লাউস। যিনি ম্যাচের ৫৭ মিনিটে মেসির গোল নাকচ করে দেন ভিএআর প্রযুক্তির সাহায্য নিয়ে। তাঁর যুক্তি ছিল, গোল হওয়ার আগেই নিজেদের অর্ধে আর্জেন্টিনার ফুটবলার নিকোলাস ফাউল করেন প্যারাগুয়ের এক ফুটবলারকে। আশ্চর্যের বিষয় হল, শুরুতে রেফারি ক্লাউস বাঁশি বাজাননি। প্রশ্ন হল, সেই ফাউলের পরে ২৭ সেকেন্ড খেলা গড়িয়ে যাওয়ার পরে কেন তিনি ফাউল নিয়ে সিদ্ধান্ত নিলেন এবং গোল বাতিল করলেন?

নিজেদের মধ্যে ১৫টি দুর্দান্ত পাস খেলার পরে গোল বাতিল হওয়ায় চটেছেন মেসিও। আর্জেন্টিনার একটি সংবাদপত্র জানিয়েছে, ম্যাচ শেষ হওয়ার পরে রেফারির কাছে গিয়ে মেসি বলে ওঠেন, 'দু’বার আপনার ভুলের শিকার হলাম আমরা।' ওই সংবাদপত্রের ব্যাখ্যা অনুযায়ী মেসি বোঝাতে চেয়েছেন, রেফারি অন্যায়ভাবে প্যারাগুয়েকে পেনাল্টি দিয়েছেন। ঠিক তার কিছুক্ষণ আগেই অনেকটা একই রকমের ফাউলের জন্য তিনি না কি আর্জেন্টিনাকে পেনাল্টি দেননি। দ্বিতীয়ত, মেসির গোলের ২৭ সেকেন্ড আগে হওয়া একটি ফাউল ভার প্রযুক্তির সাহায্যে দেখে বাতিল করেন রেফারি। তা নিয়ে ক্ষুব্ধ মেসি এবং আর্জেন্টিনা শিবির। গোলটি করার পরেই সতীর্থদের সঙ্গে উৎসবে মেতে ওঠেন মেসি। প্রথমে কেউ বুঝতেই পারেননি যে, গোল বাতিল হতে পারে।

আর্জেন্টিনার কোচ লিয়োনেল স্কালোনিও উষ্মা প্রকাশ করেন, 'এই ম্যাচের অনেক মুহূর্তেই ভার প্রয়োগ করা যেত। কিন্তু করা হয়নি। এক্ষেত্রে হল। আমি ভাল, খারাপ মনোভাবের কথা বলছি না। কিন্তু কেউ এভাবে ফুটবল দেখতে চায় না।' ভার প্রযুক্তি নিয়ে বিশ্ব জুড়েই ক্ষোভ বাড়ছে। বিশেষ করে কখন, কীভাবে এর প্রয়োগ করা উচিত, তা নিয়ে তর্ক শুরু হয়েছে।


আরও পড়ুন