উদ্বোধনের আর মাত্র
০০
দিন
০০
ঘণ্টা
০০
মিনিট
০০
সেকেন্ড

বন্যার্তদের পাশে দাঁড়ানো গায়ক তাশরীফকে পুলিশের ধমক

প্রকাশিত: জুন ২৪, ২০২২, ০৩:১৮ দুপুর
আপডেট: জুন ২৪, ২০২২, ০৪:২৮ দুপুর
আমাদেরকে ফলো করুন

বন্যায় সিলেট, সুনামগঞ্জসহ দেশের একাধিক অঞ্চল ভয়াবহ মানবিক বিপর্যয়ে পড়েছে। বন্যাদুর্গতদের পাশে দাঁড়িয়ে প্রশংসায় ভাসছেন ‘কুড়েঘর’ ব্যান্ডের তরুণ গায়ক তাশরীফ খান। গত ১৩ জুন থেকে সিলেটের বানভাসি মানুষদের সহায়তা করা এ গায়ক ফেসবুক লাইভে আহ্বান জানিয়ে এ পর্যন্ত প্রায় দেড় কোটি তুলেছেন।

ত্রাণ দিতে গিয়ে বিরূপ অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হয়েছেন বলে জানালেন সেই তরুণ গায়ক ।

অভিযোগ এনেছেন সিলেটের একটি জায়গায় চা খেতে গিয়ে পুলিশের দুর্ব্যবহারের শিকার হয়েছেন তিনি, খেয়েছেন ধমকও।

লাইভে এসে তিনি জানালেন, ত্রাণ দিতে গিয়ে যেমন পুলিশের সহায়তা পেয়েছেন, তেমনি একটি এলাকায় গিয়ে পুলিশের বাধার মুখে পড়েন। এমনও হয়েছে, তাঁদের দলকে দ্রুত স্থান ত্যাগ করতে বলেন বলে অভিযোগ তাশরীফের।

ফেসবুক লাইভে এসে তরুণ এ গায়ক সে ঘটনার বর্ণনা দিয়েছেন এভাবে, “সারা দিন কাজ করার পর গতকাল আড়াইটার দিকে সিলেটের একটি জায়গায় আমরা লাল চা খাচ্ছিলাম। এরপর পুলিশের একটা গাড়ি এলো। পুলিশের একজন অফিসার মোটামুটি ধমকের স্বরেই বললেন, ‘আপনারা কোথাকার? এখানে কী করতেছেন?’ আমি বললাম, স্যার আমরা এখানে ত্রাণ দিতে এসেছি ঢাকা থেকে। আপনাদের সিলেটের জন্যই কাজ করতেছি। আমরা চা খেয়ে এখান থেকে চলে যাব। এরপর আমাকে সরাসরি ধমক দেওয়া হয়েছে। আমাকে বলা হয়েছে, ‘চলে যান এখান থেকে।’”

গায়ক আরও যুক্ত করেছেন “এরপর আমি তাঁকে বলেছি, স্যার দয়া করে কোনো নাগরিককে এভাবে ধমক দেবেন না। সিলেট বিপদে আছে। আমরা সিলেটের জন্য কাজ করতে এসেছি। আমরা এখানে চুরি-চামারি করতে আসিনি। আমি উনাকে রিকোয়েস্ট করে বলেছি, স্যার চা শেষ করে আমি চলে যাব। তারপর আমাকে কী বলা হয়েছে শুনুন—তখন আমাকে আঙুল তুলে বলা হয়েছে, ‘এখন তো ভালো করে বলেছি, এরপর খারাপ করে বলব। এক্ষুনি চলে যান এখান থেকে।’ এ কথাটা শোনার পর আমি একটা শব্দও করি নাই।”

লাইভে সেই পুলিশ সদস্যের উদ্দেশে তাশরীফ বলেন, ‘স্যার দয়া করে এ সময়টাতে আপনারা একটু পাশে দাঁড়ায়েন। আমাদের পারলে একটু সাহস দিয়েন। আমাদের সাহসটা খুব দরকার। আপনারা সাথে থাকলে আমাদের মন, আমাদের কাঁধটা অনেক ভারী হয়ে যায়।’

তাশরীফ খান বর্তমানে তাঁর দল নিয়ে ১২ হাজার পরিবারকে সহায়তা করার জন্য কাজ করছেন।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়