কমেছে বন্যার পানি শাবিপ্রবিতে স্বস্তিতে সংশ্লিষ্টরা

প্রকাশিত: জুন ১৯, ২০২২, ০১:১৪ দুপুর
আপডেট: জুন ১৯, ২০২২, ০৬:২৯ বিকাল
আমাদেরকে ফলো করুন

উজানের পাহাড়ি ঢল ও টানা বৃষ্টিপাতে সুরমা নদীর পানি উপচে পড়ে সিলেট নগরীর বিভিন্ন এলাকায়। বাদ পড়েনি শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ও। বন্যায় প্লাবিত ক্যাম্পাসে এখন কমেছে পানি। এতে স্বস্তিতে আছেন সংশ্লিষ্টরা।

 

সরেজমিনে দেখা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেলের সামনের সড়ক, বিভিন্ন একাডেমিক ভবন, প্রশাসনিক ভবন, গোল চত্বর, কিলো রোড ও আবাসিক হলসহ ক্যাম্পাসের বিভিন্ন জায়গা থেকে পানি নেমে গেছে। স্বাভাবিক হয়েছে গাড়ি চলাচল। নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র আনা নেয়ায় কোনো সমস্যা হচ্ছে না। এতে স্বস্তির নিশ্বাস ফেলছেন শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা।

 

পানি কমায় উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের ২০২০-২১ সেশনের শিক্ষার্থী আল আমিন জানান, ক্যাম্পাসে বন্যা হওয়ায় খুবই উদ্বিগ্ন ছিলাম। এখন পানি কমেছে। খুব ভালো লাগছে। আবারো একসঙ্গে বন্ধু-বান্ধবরা মিলে ক্লাস করবো, আড্ডা দিবো।

 

বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার ভবনের গার্ড নাহিদ আহমদ জানান, বন্যায় ক্যাম্পাস প্লাবিত হওয়ায় দায়িত্ব পালন করতে অনেক কষ্ট হয়েছে। পানিতে ভিজে আসতে হতো। কাজের জায়গায় এসে কাপড় পরিবর্তন করতে হতো। কিন্তু এখন পানি কমায় কোনো সমস্যা হচ্ছে না।

 

গত ১৪ মে সিলেটে টানা ভারী বৃষ্টিপাত ও পাহাড়ি ঢলের কারণে এবার প্রথম বন্যা হয়। এতে ক্ষতিগ্রস্ত হয় হাজারো মানুষ। বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি ঘটলে ক্ষতি পুষিয়ে উঠতে না উঠতেই আবারও বন্যার কবলে পড়ে এ এলাকার বাসিন্দারা। গত কিছুদিন ধরে আবারও টানা বৃষ্টিপাত শুরু হওয়ায় নগরের বিভিন্ন জায়গায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। ভোগান্তিতে পড়ে লোকালয়ের মানুষ।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়