রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের আমরণ অনশন চলছে

Online Desk Online Desk
প্রকাশিত: ০৩:২১ পিএম, ২৪ অক্টোবর ২০২১

সিরাজগঞ্জের রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৪ শিক্ষার্থীর চুল কেটে দেওয়ার অভিযোগে শিক্ষক ফারহানা ইয়াসমিন বাতেনের স্থায়ী বহিস্কারের দাবিতে আজ রোববার দ্বিতীয় দিনের মতো আমরণ অনশন কর্মসূচি পালন করছেন শিক্ষার্থীরা। শাহজাদপুর উপজেলার বিসিক বাসস্ট্যান্ড এলাকায় অবস্থিত রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবনের সামনে গতকাল শনিবার সকাল থেকে আমরণ অনশন শুরু করেন তাঁরা।


আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা বলছেন, রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৪ শিক্ষার্থীর চুল কেটে দেওয়ার ঘটনায় গঠিত তদন্ত কমিটি গত বৃহস্পতিবার বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত ভিসি ও ট্রেজারার আব্দুল লতিফের কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করে। এরপর ভিসি ও ট্রেজারার এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে গত শুক্রবার বিকেলে ঢাকা অফিসে সিন্ডিকেট বৈঠক ডাকেন। কোনো সিদ্ধান্ত ছাড়াই বৈঠকটি মুলতবি হয়ে যায়।

এরপর শিক্ষার্থীরা সভা করে আবারও আন্দোলনের সিদ্ধান্ত নেন। গতকাল শনিবার সকাল থেকে একাডেমিক ভবনের সামনে আমরণ অনশন শুরু করেন তাঁরা। ফারহানা ইয়াসমিন বাতেনের স্থায়ী বহিস্কার না হওয়া পর্যন্ত এই আন্দোলন চলবে বলে জানান আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

গত ২৬ সেপ্টেম্বর দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ও বাংলাদেশ অধ্যয়ন বিভাগের প্রথম বষের্র ফাইনাল পরীক্ষার হলে প্রবেশের সময় ১৪ শিক্ষার্থীর চুল কেটে দেওয়ার অভিযোগ ওঠে বিভাগের চেয়ারম্যান সহকারী প্রক্টর ফারহানা ইয়াসমিনের বিরুদ্ধে। এ ঘটনার প্রতিবাদে ২৮ সেপ্টেম্বর সকাল থেকে শিক্ষার্থীরা সব পরীক্ষা বর্জন করে একাডেমিক এবং প্রশাসনিক ভবনে তালা ঝুলিয়ে দিয়ে বিক্ষোভ করেন। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ে সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ও বাংলাদেশ অধ্যয়ন বিভাগের চেয়ারম্যান, সহকারী প্রক্টর ও সিন্ডিকেট সদস্য পদ থেকে পদত্যাগ করেন ফারহানা ইয়াসমিন বাতেন। পরে এ ঘটনার তদন্তে পাঁচ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠিত হয়।