সাগর-রুনি হত্যাকান্ড

Staff Reporter Staff Reporter
প্রকাশিত: ০৫:৪৭ পিএম, ১৬ অক্টোবর ২০২০

সাংবাদিক দম্পতি সাগর সারওয়ার ও মেহেরুন রুনি হত্যা মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের তারিখ ফের পিছিয়েছে। গত বুধবার মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের দিন ধার্য ছিল। এ নিয়ে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য ৭৫ বার সময় পেছাল। তবে নির্ধারিত দিনে প্রতিবেদন দাখিল করতে পারেননি র‌্যাবের তদন্ত কর্মকর্তা। তাই ঢাকা মহানগর হাকিম রাজেশ চৌধুরী আগামী ২২ নভেম্বর নতুন দিন ধার্য করেন। ২০১২ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি রাতে ঢাকার পশ্চিম রাজা বাজারে সাংবাদিক দম্পতি মাছরাঙা টেলিভিশনের বার্তা সম্পাদক সাগর সারওয়ার এবং এটিএন বাংলার জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক মেহেরুন রুনি তাদের ভাড়া বাসায় নির্মমভাবে খুন হন। সাগর-রুনি হত্যায় প্রায় আট বছর পার হলেও মামলার তদন্তে তেমন কোনো অগ্রগতি নেই, এটা দুর্ভাগ্যজনক। এ চাঞ্চল্যকর হত্যাকান্ডের ঘটনায় পুলিশ ও ডিবির তদন্তের ব্যর্থতার পর ২০১২ সালের এপ্রিল থেকে উচ্চ আদালতের নির্দেশে মামলাটির তদন্ত করছে র‌্যাব।

 শুরুতে র‌্যাব বলে আসছিল, সাগর-রুনির বাসার নিরাপত্তা কর্মি হুমায়ুন ওরফে এনামুলকে গ্রেফতার করা সম্ভব হলে হত্যারহস্যের জট খুলবে। কিন্তু পর বছর এনামুল গ্রেফতার হলেও এ হত্যাকান্ডের জট আজও খোলেনি। উল্লেখ্য, হত্যাকান্ডের শুরুতে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনীর ভূমিকা আশাপ্রদ হলেও দ্রুত সময়ের ব্যবধানে তাদের ভিন্নসুর ও ভিন্ন অবস্থান গ্রহণ জনমনে নানা সন্দেহ এবং প্রশ্ন তৈরি করে। পরবর্তী সময়ে একের পর এক রহস্যময় আচরণের কারণে সরকার সাংবাদিক মহল সহ সাধারণ মানুষের আস্থাও নষ্ট করেছে। দেশের প্রতিটি নাগরিকের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা নিশ্চিত করা রাষ্ট্রের দায়িত্ব। একই সঙ্গে সব ধরনের অপরাধ, অবিচার ও অরাজকতা নিয়ন্ত্রণ এবং রোধ করার দায়িত্ব রাষ্ট্রের। কিন্তু রাষ্ট্রের বর্তমান সার্বিক চিত্র সে বিষয়ে জনগণকে আশ্বস্ত করার জন্য যথেষ্ট সহায়ক নয়। আমাদের বিশ্বাস বর্তমান তদন্তকারী সংস্থা নিজেদের সুনামের কথা বিবেচনা করে আদালতের নির্দেশনা পালনে সর্বাত্মক নজর দেবে এমনটিই কাম্য।