আশা জাগাচ্ছে পোশাকখাত

Staff Reporter Staff Reporter
প্রকাশিত: ০৬:৪৫ পিএম, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২০

করোনা মহামারিকালে একটি সংবাদ আমাদের আশাবাদী করে তোলে। তৈরি পোশাক রপ্তানিতে বিশ্বে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। এ খাতের উদ্যোক্তারা আশা করছেন আগামী ডিসেম্বরে বড় দিন ঘিরে প্রাণ ফিরতে শুরু করবে বিশ্বের পোশাক বাজার, আর তখনই ঘুরে দাঁড়ানোর সুযোগ পাবে বাংলাদেশ। বরাবরের মতো প্রথম স্থানে রয়েছে চীন। আর বাংলাদেশ এক ধাপ নিচে অর্থাৎ তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে প্রধান প্রতিযোগী দেশ ভিয়েতনাম। বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার (ডব্লিউটিও) সম্প্রতি প্রকাশিত ওয়াল্ড স্ট্যাসিট টিক্যাল রিভিউ-২০২০ প্রতিবেদনে তথ্য উঠে এসেছে। পোশাক রপ্তানিতে দ্বিতীয় অবস্থানে মূলত ২৭ দেশের জোট ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)। কিন্তু একক দেশ হিসাব করলে দ্বিতীয় বাংলাদেশ। একক দেশ হিসেবে ২০১৯ সালে তৈরি পোশাক রপ্তানিতে শীর্ষ চীন। সার্বিকভাবে আগের তুলনায় পোশাক বিক্রি কমলেও নিজেদের অর্থনৈতিক দুর্দশার কারণে ভোক্তারা কম দামের পোশাকের দিকে ঝুঁকছে। ফলে বাংলাদেশের পোশাক রপ্তানি চলতি অর্থ বছরের প্রথম মাসে প্রাণ ফিরে পেয়েছে।

করোনাকালেও ডেনিস রপ্তানিতে শীর্ষ স্থানে পৌছেছে বাংলাদেশ। আমাদের অনেক সীমাবদ্ধতার মাঝেও আমরা বাজার ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছি। তবে খাত সংশ্লিষ্টরা বলছেন, রপ্তানি বাজারে টিকে থাকতে হলে পণ্য উৎপাদনে বৈচিত্র্য আনতে হবে। আমরাও তাই মনে করি। এ জন্য বর্তমান চাহিদা ও আগামীর সম্ভাবনার ওপর জোর দিয়ে সঠিক পরিকল্পনা ও কার্যকর উদ্যোগ নিতে হবে। এ ক্ষেত্রে সরকারকে প্রয়োজনীয় নীতি সহায়তা দিতে হবে। তাহলে রপ্তানি বাড়িয়ে অবস্থান ধরে রাখা সম্ভব হবে। মনে রাখতে হবে, তিনি পোশাক শিল্প দেশের অর্থনীতির চাকাকে সচল রেখেছে। দেশের সুনাম কুড়িয়ে এনেছে। এ খাতে দেশের লাখ লাখ মানুষের কর্মসংস্থান হয়েছে। বিশেষ করে নারীরা নিজের পায়ে দাঁড়িয়েছে এই শিল্পের মাধ্যমে। যাদের শ্রমে-ঘামে এই শিল্প দাঁড়িয়ে আছে, বিশ্বে নন্দিত হয়েছে, তাদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তা বা সুরক্ষাসহ চাকরির নিরাপত্তা মালিকদেরই নিশ্চিত করতে হবে।