ইলিশের জন্য প্রার্থনা

Staff Reporter Staff Reporter
প্রকাশিত: ০৮:১৯ পিএম, ৩০ জুলাই ২০২০

প্রায় একশ দিন পর নিজস্ব ঠিকানায় ফিরছেন মৎস্যজীবীরা। ইলিশ ধরায় নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষে ঝাঁকে ঝাঁকে রূপালি ইলিশ ধরার আশায় আবার সাগরে যাত্রা শুরু করেছেন উপকূলীয় জেলেরা। গত ২০মে ইলিশ ধারায় নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়। তবে তার অনেক আগেই করোনাভাইরাস মহামারির কারণে মাছ ধরা বন্ধ ছিল। বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষের আগে বিকালেই বরফসহ জরুরি সরঞ্জাম সহ বড় বড় ট্রলার নিয়ে মাছ ধরতে সাগর পথে রওনা হন। জেলেরা তার আগে কয়েকদিন ধরে চলে চাল-ডাল-তেল-সবজি কেনা, জাল মেরামত আর প্রয়োজনীয় উপকরণ বোঝাই করা। মাছ ব্যবসায়ীরা বলছেন, বৃষ্টির সাথে ঢলের পানিও আছে। এই সময় ইলিশের সাইজ অনেক বড় হয়। চাঁদপুরের দিকে এককেজি ওজনের ইলিশ ধরা পড়ছে। লকডাউন আর নিষেধাজ্ঞায় সাগরে জাল পড়েনি তাই এবার মাছের পরিমাণও বেশি হবে। এখন পর্যন্ত চট্টগ্রাম থেকে তিনশ বোট ইলিশ শিকারে সাগর অভিমুখে রওয়ানা হয়েছে। আরও চার-পাঁচশ রওনা হবে। চট্টগ্রাম মৎস্যজীবী সমিতির সভাপতি লিটন দাস বলেন, ‘এবার করোনা আর নিষেধাজ্ঞা মিলিয়ে আমাদের জেলেরা খুব অসহায় দিন যাপন করেছেন। নিষেধাজ্ঞার সময় সরকারি বরাদ্দ চাল ছাড়া কিছুই পায়নি। চারমাসের বেশি সময় রোজগার নেই। এবার ইলিশ বেশি ধরতে পারলে হয়তো ধার দেনা শোধ করে কিছু আয় হবে- এটাই আশা সবার। ঋণ নিয়ে নৌকা ও জাল ভাড়া করে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ইলিশ আহরণের জন্য যেসব জেলে সমুদ্রে যান, লোকসানের শিকার হলে এ কাজের প্রতি তারা আগ্রহ হারিয়ে ফেলবেন। যাদের জীবনবাজির বিনিময়ে উপকূলীয় অঞ্চলের বাইরের মানুষের পাতে ইলিশ ওঠে, এ কাজের প্রতি তারা আগ্রহ হারিয়ে ফেললে বাঙালির ইলিশ খাওয়াও কি ক্রমেই অনিশ্চিত হয়ে উঠবে না।