করোনা বর্জ্যে বাড়ছে দূষণ

Staff Reporter Staff Reporter
প্রকাশিত: ০৬:৪২ পিএম, ৩০ জুন ২০২০

 বিশ্বব্যাপী মহামারি করোনার সংক্রমণের ফলে বেড়েছে মাস্ক, গ্লাভস, পারসোনাল প্রটেকশন ইক্যুইপমেন্ট (পিপিই), স্যানিটাইজার থেকে শুরু করে বিভিন্ন সুরক্ষা সরঞ্জামের ব্যবহার। কিন্তু, নির্দিষ্ট কোনো নীতিমালা না থাকায় ব্যবহারের পর এসব সুরক্ষা সামগ্রী যত্রতত্র ফেলে দেওয়া হচ্ছে। এতে করোনা বর্জ্যের ফলে দীর্ঘমেয়াদে পরিবেশ দূষণ বাড়ছে। একই সঙ্গে বাড়ছে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি। অনেকেই করোনার এসব সুরক্ষা সামগ্রী ব্যবহারের পর রাস্তাঘাটেই ফেলে দিচ্ছে। এতে করে এগুলো বৃষ্টির পানিতে ধুয়ে চলে যাচ্ছে ড্রেনে, ড্রেন থেকে নদীতে। সবশেষে এগুলোর ঠিকানা হচ্ছে সাগরের তলদেশে। ফলে সাগরের জীববৈচিত্র্য, পরিবেশেও ভবিষ্যতে এসবের ক্ষতিকর প্রভাব পড়বে। পরিবেশবিদদের আশংকা, করোনা থেকে আত্মরক্ষার জন্য যে উপকরণগুলো অত্যাবশ্যকীয়, ভবিষ্যতে তা হয়ে উঠবে পরিবেশ দূষণের অন্যতম বিপদের কারণ। একবার ব্যবহার করা মাস্ক এবং গ্লাভসকে এ ক্ষেত্রে দূষণের অন্যতম কারণ হিসেবে দেখছেন বিশেষজ্ঞরা। সুতি কাপড়ের তৈরি মাস্ক দ্রুত পচনশীল হওয়ায় পরিবেশের তেমন কোনো ক্ষতি হয় না। তবে অপচনশীল মাস্ক, গ্লাভস ও খালি বোতলও নতুন করে পরিবেশ দূষণের মাত্রা বাড়িয়ে দিচ্ছে।  হাসপাতালের বর্জ্য আলাদা করে ডিসইনফেক্টেড করে, তারপর এগুলো বর্জ্য যারা নিষ্কাশন করে তাদের দিতে হবে। কিন্তু এখনও সেটা কার্যকর করা হয়নি। কোভিড হাসপাতালের বর্জ্য একেবারে সঠিক ব্যবস্থাপনায় বৈজ্ঞানিক উপায়ে প্রক্রিয়া করতে পারলে স্বাস্থ্যকর পরিবেশ সুরক্ষা করা সম্ভব।