চরম ভোগান্তি নমুনা পরীক্ষা নিয়ে

Staff Reporter Staff Reporter
প্রকাশিত: ০৭:১৯ পিএম, ২৯ জুন ২০২০

দেশে করোনা শনাক্তের পর থেকে সাধারণ মানুষের চরম ভোগান্তি নমুনা পরীক্ষা নিয়ে। টানা কয়েকদিন লাইনে দাঁড়িয়ে থাকার পরও নমুনা দিতে পারছেন না অনেকে। কয়েকটি হাসপাতাল এ পরিস্থিতি সামলে উঠলেও এখনও বেশকিছু জায়গায় রয়ে গেছে অব্যবস্থাপনা। এমন পরিস্থিতিতে শিগগিরই করোনা পরীক্ষা হবে আইসিসিডিআরবি’তে। তবে এজন্য দিতে হবে সরকার নির্ধারিত ফি। এদিকে সকাল ৭ টা থেকে লাইনে দাঁড়িয়ে দুপুর ১ টা পর্যন্ত হাসপাতালের ভেতরেও যেতে পারেনা নমুনা দিতে আসা অনেক মানুষ। তাদের অভিযোগ আত্মীয় পরিচয়ে কিংবা অর্থের বিনিময়ে পেছন থেকেও আগে ঢুকছেন অনেকে। করোনা উপসর্গ নিয়ে ঘন্টার পর ঘন্টা লাইনে দাঁড়িয়ে সংক্রমিত হবার শঙ্কাও রয়েছে। সাধারণ মানুষের এমন ভোগান্তিতে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের নেই কোন ভ্রুক্ষেপ। বেসরকারি ব্যবস্থাপনায়ও চলছে নমুনা সংগ্রহ। রোগীর সংখ্যা সেখানে কম। সরকারি হাসপাতালগুলোতে টেস্ট করাতে যারা পারছেন না, তারা টাকার বিনিময়ে যাচ্ছেন সেখানে। সেই তালিকায় সবশেষ সংযোজন আইসিসিডিআরবির ডায়াগোনোস্টিক ল্যাব। করোনার নমুনা দিতে কেন্দ্র ও বুথে প্রতিদিনই ভিড় বাড়ছে। নমুনার ফলাফল আসতে বিলম্বে কারও কর্মঘণ্টা নষ্ট হচ্ছে। এ সমস্যা সমাধানে আরও ল্যাব স্থাপনের বিকল্প নেই বলে জানান। এদিকে নমুনা জটের কারণে বিলম্বিত হচ্ছে নতুন রোগী শনাক্ত কিংবা ফলোআপ প্রক্রিয়া। করোনার সংক্রমণ বাড়ায় বেড়েছে পরীক্ষার প্রয়োজনীয়তাও। তাই জমছে নমুনার পাহাড়। কিন্তু পরীক্ষাগারে নেই পর্যাপ্ত মেশিন। করোনার নমুনা পরীক্ষায় ত্বরিৎ পদক্ষেপ ও স্বচ্ছতা থাকা জরুরি।