অনলাইন বিচার কার্যক্রম

Staff Reporter Staff Reporter
প্রকাশিত: ০৫:০৬ পিএম, ২২ মে ২০২০

করোনা সংক্রমণের প্রেক্ষাপটে বাংলাদেশের উচ্চ এবং নিম্ন আদালতে অনলাইনে বিচার (ভার্চুয়াল আদালত ব্যবস্থা) কার্যক্রম শুরু হয়েছে। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে মামলার শুনানি চলছে। ভার্চুয়াল আদালত ব্যবস্থা চালুর পর এরই মধ্যে চার কার্যদিবস (সোমবার-বৃহস্পতিবার)-পেরিয়ে গেছে। এ সময় হাইকোর্ট এবং দেশের ৬৪ জেলার মধ্যে ৫০টিতে ভার্চুয়াল আদালত ভার্চুয়াল আদালত কার্যক্রম শুরু হয়েছে। বাকি ১৪ জেলায় চালুর প্রস্তুতি চলছে। দেশে বিচার ব্যবস্থার ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ভার্চুয়াল আদালত পরিচালনা যে উদ্যোগ বিচার বিভাগ গ্রহণ করেছে আমরা সেটাকে স্বাগত জানাই। নাগরিকরাও নতুন এই ব্যবস্থাকে কীভাবে স্বাগত জানিয়েছে তার ছাপ দেখা গেছে ফেসবুক সহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। করোনা সংক্রমণের প্রেক্ষাপটে ঘোষিত সাধারণ ছুটির কারণে নিয়মিত আদালত বন্ধ থাকায় ভার্চুয়াল আদালত চালু করতে রাষ্ট্রপতিকে অধ্যাদেশ জারি সহ অনুরোধ জানিয়ে আবেদন করা হয় সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন থেকে। রাষ্ট্রপতির নির্দেশনার আলোকে আইন মন্ত্রণালয় ৯মে ভার্চুয়াল উপস্থিতিকে সশরীরে উপস্থিত হিসেবে গণ্য করে আদালতে তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার অধ্যাদেশ, ২০২০ সালে গেজেট প্রকাশ করেছে। আমরা বিশ্বাস করি, আগামী দিনগুলোতে প্রয়োজনীয় অন্যান্য পদক্ষেপ গ্রহণেও সংশ্লিষ্টরা উদ্যোগী হবেন। একটি গতিশীল ও অংশগ্রহণমূলক বিচার ব্যবস্থা গড়ে তুলতে হলে এর বিকল্পও নেই। অস্বীকার করা যাবে না যে, দেশে ভার্চুয়াল বিচার প্রক্রিয়া সূচিত হয়েছে এক বিশেষ পরিস্থিতিতে। এ ব্যবস্থা শুধু বিচার ব্যবস্থাকে চালু করবে না। এ ব্যবস্থা উচ্চ ও নিম্ন আদালতে বিদ্যমান মামলা জট কমাতে সহায়ক হবে।