বাড়িতে চিকিৎসা নিয়েই করোনা জয় করল নন্দীগ্রামের শিশু সিনথিয়া

Staff Reporter Staff Reporter
প্রকাশিত: ০৫:৫৯ পিএম, ০৭ মে ২০২০

নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ বাড়িতে চিকিৎসা নিয়েই করোনা জয় করল বগুড়ার নন্দীগ্রামের শিশু সিনথিয়া ইসলাম (১১)। পরপর দুটি নমুনা পরীক্ষায় করোনা ভাইরাস রেজাল্ট নেগেটিভ এসেছে। পাশাপাশি তার পরিবারের অন্য সদস্যদের শরীরেও করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব মেলেনি। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. তোফাজ্জল হোসেন মন্ডল এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।জানা গেছে, গত ২২ এপ্রিল করোনা শনাক্ত হওয়ার পর থেকে বাড়িতে চিকিৎসাধীন ছিল সিনথিয়া ইসলাম। তৃতীয় দফায় তার নমুনা পরীক্ষার ফল নেগেটিভ পাওয়া যায়। শিশু সিনথিয়া নন্দীগ্রাম উপজেলার ভাটগ্রাম ইউনিয়নের বিজরুল গ্রামের আমিনুল ইসলাম মামুনের মেয়ে। শিশুটির বাবা  র‌্যাংগস গ্রুপে ডেপুটি ম্যানেজার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তিনি গত ১৮ এপ্রিল বিজরুল গ্রামের বাড়িতে পরিবারসহ আছেন। শিশুর কোনো শারীরিক সমস্যা ছিল না। তবে ঢাকাফেরত খবর পেয়ে গত ২১ এপ্রিল উপজেলা হাসপাতালের স্বাস্থ্যকর্মীরা সতর্কতামূলক পদক্ষেপ হিসেবে ওই দিন তার নমুনা সংগ্রহ করে বগুড়ায় পাঠায়। আর তাদের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে বলা হয়। পরে ২২ এপ্রিল রাতে তার নমুনা রিপোর্ট পজিটিভ আসার খবর পাওয়া যায়।

চিকিৎসা গ্রহণ পদ্ধতি সম্পর্কে শিশুটির বাবা আমিনুল ইসলাম মামুন বলেন চিকিৎসকের পরামর্শে পর্যাপ্ত পরিমাণে হালকা গরম পানিতে লবণ মিশিয়ে ঘনঘন গারগিল করানো হয়েছে। কিছুক্ষণ পর পর হালকা গরম পানি পানসহ নিয়মিত চা খাওয়ানো হয়েছে। তবে কোনো ওষুধ সেবন করা হয়নি। করোনামুক্ত হওয়ার জন্য স্থানীয় স্বাস্থ্য বিভাগ, প্রশাসন ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন মেয়ের বাবা আমিনুল ইসলাম।উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. তোফাজ্জল হোসেন মন্ডল বলেন, তৃতীয় দফায় শিশুর নমুনা পরীক্ষার ফল নেগেটিভ পাওয়া গেছে। শিশু সিনথিয়া এখন করোনাভাইরাস মুক্ত। পাশাপাশি তার সংস্পর্শে আসা পরিবারের অন্য সদস্যদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিল। তাদের রিপোর্টও নেগেটিভ এসেছে। এ ছাড়া আশপাশের চারটি বাড়ির লকডাউন প্রত্যাহার করা হয়েছে।