বগুড়ার জলেশ্বরীতলায় বখাটেরা বেপরোয়া: অতিষ্ট এলাকাবাসী

মোবাইল ফোনে ছবি তোলা হয় মেয়েদের

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ০৪, ২০২২, ১০:৫৬ রাত
আপডেট: ডিসেম্বর ০৫, ২০২২, ১২:২০ দুপুর
আমাদেরকে ফলো করুন

স্টাফ রিপোর্টার: বগুড়া শহরের জলেশ্বরীতলায় টিনএজ বখাটেদের বেপরোয়া। কিছুতেই দমানো যাচ্ছেনা তাদের। বিশেষ করে শহীদ আব্দুল জোব্বার সড়কে প্রি-ক্যাডেট হাইস্কুলের দক্ষিণ পাশ ঘেঁষা স্কুল হেলথ ক্লিনিকের সামনে ও তার আশপাশ এলাকায় এদের উৎপাত বেশি। শুধু এই এলাকাই নয়,গোটা জলেশ্বরীতলা এলাকায় বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে বখাটেদের অত্যাচার ও উপদ্রব বেড়েছে। এদের অত্যাচারে স্কুল-কলেজ ও কোচিং সেন্টারগামী মেয়েদের পথচলা দায় হয়ে পড়েছে। শান্তিপ্রিয় এলাকাবাসিও অতিষ্ট হয়ে পড়েছেন।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, স্কুল ও কোচিং সেন্টারগুলোর কার্যক্রম শুরু এবং ছুটির সময় বখাটেদের উৎপাত আরও বেড়ে যায়। বখাটেরা ফুটপাত,বিভিন্ন ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান,ভবন,বাড়ির সামনে ও অলিগলিতে অবস্থায় নেয় আর সিগারেট ফুঁকিয়ে মেয়েদের উত্যক্ত করে। সেইসাথে বখাটেরা মোবাইল ফোনে গোপনে ও প্রকাশ্যে মেয়েদের ভিডিও করে ও ছবি তোলে। প্রেমে রাজি না হলে মোবাইল ফোনে ধারন করা সেই ছবি এডিটিং করে ইন্টারনেটে ছেড়ে দেয়ার হুমকিও দেয়। বখাটের সাথে স্কুল-কলেজের এক শ্রেণির শিক্ষার্থীরাও জলেশ্বরীতলায় বিভিন্ন স্থানে প্রকাশ্যে ধূমপান করে আড্ডা দেয় আর মেয়েদের উত্যক্ত করে। বখাটেরা মোটর সাইকেলযোগে মেয়েদের পিছু নেয়। উত্যক্ত করতে করতে বাড়ি পর্যন্ত যায়।

কোন কোন বখাটের হাতে চাকু- ছোরাও থাকে। মেয়েদের সাথে অভিভাবকরা থাকলেও তারা তোয়াক্কা করে না। এতে ভয়ে অভিভাবকরা প্রতিবাদ করারও সাহস পান না। বিশেষ করে প্রতিদিন বিকেল ৪ টা থেকে রাত ১০ টা পর্যন্ত জলেশ্বরীতলা এলাকা জুড়ে বখাটেরা আড্ডা দেয়। সেইসাথে তারা বিকট শব্দে সাপের মত এঁকিয়ে বেঁকিয়ে গোটা জলেশ্বরীতলা এলাকার রাস্তায় রাস্তায় মহড়া দেয়। এতে জনসাধারণের মধ্যে ব্যাপক আতংকের সৃষ্টি হয়। কিন্তু ভয়ে কেউ মুখ খোলেনা।

ফুটপাত দখল করে রাখা দোকানিরা স্কুলের শিক্ষার্থীদের কাছে সিগারেট বিক্রি করে পরিবেশ দূষিত করে। বিশেষ করে প্রি-ক্যাডেট হাই স্কুলের দক্ষিণ পাশে স্কুল হেলথ ক্লিনিকের সামনে ফুটপাত ও রাস্তা দখল করে বার্গার বিক্রি করছে দোকানিরা। এতে ওই সব দোকান ঘিরেই শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন মানুষের ভিড় বাড়ছে। আড্ডা হচ্ছে। মানুষ ফুটপাত দিয়ে হাঁটতে পারছে না। রাস্তা ও ফুটপাত দখল করে তারা মানুষের চলাচলে বাধা দিলেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না।

গোটা জলেশ্বরীতলা এলাকা জুড়েই ফুটপাত দখল করে পসরা সাজিয়েছে ভ্রাম্যমাণ দোকানিরা। এতে ফুটপাত দিয়ে চলাচল করা দায় হয়ে পড়েছে। এ ছাড়া জলেশ্বরীতলার কালীবাড়ি মোড় ও ইয়াকুবিয়া গার্লস স্কুল মোড়ে প্রায় প্রতিদিনই যানজট লেগেই থাকছে। যানজটের কবলে পড়ে নাকাল হচ্ছে মানুষ। কিন্তু দেখার কেউ নেই।

এ ব্যাপারে জলেশ্বরীতলা ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক এ্যাডোনিস বাবু তালুকদার বলেন, জলেশ্বরীতলা এলাকায় ফুটপাত দখল, যানজট নিয়ন্ত্রন, বখাটেদের অত্যাচার-উপদ্রব ঠেকাতে ইতোমধ্যে সমিতির পক্ষ থেকে সমাবেশ ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। তিনি বলেন, প্রি-ক্যাডেট স্কুলের পাশে স্কুল হেলথ ক্লিনিকের সামনে ফুটপাতে বসা দোকানগুলো সরিয়ে দেয়া হয়েছিল। কিন্তু ফের সেখানে দু’একটি দোকান বসেছে বলে তিনি জানতে পেরেছেন। পুলিশের সহযোগিতায় আজকের মধ্যে দোকানগুলো উচ্ছেদ করা হবে।

এ ব্যাপারে বগুড়া সদর ফাঁড়ির ইনচার্জ ইন্সপেক্টর মো: শাহিনুজ্জামান বলেন, জলেশ্বরীতলায় বখাটের বিরুদ্ধে  পুলিশের অভিযান শুরু করা হয়েছে। এ ছাড়া সেখানে ফুটপাত দখলমুক্ত রাখতেও পুলিশ কাজ করছে। এদিকে, বগুড়া সদর ট্রাফিক ফাঁড়ির ইনচার্জ (টিআই) প্রশাসন মো: মাহবুবুল ইসলাম খান  বলেন, জলেশ্বরীতলায় ফুটপাত দখল ও যানজট নিয়ন্ত্রণে কাজ করা হচ্ছে।

 

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়