রংপুরে বিএনপি’র সঙ্গে সংঘর্ষে পুলিশসহ আহত ২৫

প্রকাশিত: নভেম্বর ২৩, ২০২২, ০১:২২ দুপুর
আপডেট: নভেম্বর ২৩, ২০২২, ০১:২২ দুপুর
আমাদেরকে ফলো করুন

মফস্বল ডেস্ক : রংপুর জেলা বিএনপি’র নেতাকর্মীদের সাথে পুলিশের সংঘর্ষে ৩ পুলিশসহ কমপক্ষে ২৫ জন আহত হয়েছেন। মঙ্গলবার বিকেলে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ছাত্রদল নেতা নয়ন মিয়া হত্যার প্রতিবাদে জেলা বিএনপি একটি মিছিল বের করে।

মিছিলটি নগরীর শাপলা চত্বর প্রদক্ষিণ করে জাহাজ কোম্পানি অভিমুখে যেতে চাইলে গ্র্যান্ড হোটেল মোড়ে বিএনপি অফিসের সামনে পুলিশের বাধার মুখে পড়ে। এক পর্যায়ে বিএনপির মিছিল থেকে পুলিশের সঙ্গে ধাক্কাধাক্কি এবং পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করলে পুলিশ লাঠিচার্জ করে মিছিলটি ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এ সময় পুলিশের এএসআই মোমেন, নায়েক মানিক হোসেন এবং কনস্টেবল মিঠুন চন্দ, শান্তিসহ অন্তত ২৫ জন আহত হন।

জেলা যুবদলের সভাপতি নাজমুল আলম নাজু বলেন, তাদের ১৭ জন নেতাকর্মীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।  যারা আহত হয়েছেন তাদের মধ্যে জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য মামুনুর রশিদ মামুন, পীরগাছা যুবদলের যুগ্ম আহবায়ক আনিছুল হক ভূঁইয়া, পীরগাছার ইটাকুমারী ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক, জেলা মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক  রওশন আরা রত্মা, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের ভারপ্রাপ্ত আহবায়ক ময়েন উদ্দিনের নাম জানা গেছে। এর বাহিরেও অনেকেই আছেন বলে তিনি জানান।

এ ব্যাপারে রংপুর মেট্রোপলিটনের কোতোয়ালি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) হোসেন আলী বলেন, বিএনপি নেতাকর্মীরা ইটপাটকেল নিক্ষেপ করায় কয়েকজন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। এ বিষয়ে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

এর আগে সকালে মহানগর বিএনপির আহবায়ক সামসুজ্জামান সামু ও সদস্য সচিব এড. মাহফুজ উন নবী ডনের নেতৃত্বে দলীয় কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ করা হয়। এ সময় মহানগর বিএনপির সদস্য সুলতান আলম বুলবুল, মহানগর যুবদল সভাপতি নুরুন্নবী চৌধুরী মিলন, মহানগর ছাত্রদল সভাপতি নুর হাসান সুমন বক্তব্য রাখেন।

এছাড়াও দলটির মহানগর ও ওয়ার্ড পর্যায়ের বিভিন্নস্থরের নেতাকর্মীরা অংশ নেন। বিক্ষোভের একপর্যায়ে সেখানেও পুলিশ বাধা দেয়। এ সময় পুলিশের সঙ্গেও ধাক্কাধাক্কি হয়।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়