পাঁচবিবিতে নেপিয়ার ঘাস চাষে ঝুঁকছেন কৃষকরা

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২২, ২০২২, ০৪:৫১ দুপুর
আপডেট: সেপ্টেম্বর ২২, ২০২২, ০৪:৫১ দুপুর
আমাদেরকে ফলো করুন

দুলাল অধিকারী (বাগজানা) : কম খরচে বেশি লাভ ও গবাদি পশু পালনের প্রধান খাদ্য হিসেবে ঘাসের চাহিদা বৃদ্ধি পাওয়ায় জয়পুরহাটের পাঁচবিবিতে বাণিজ্যিকভাবে নেপিয়ার ঘাস চাষে ঝুঁকছেন কৃষকরা। অপরদিকে নেপিয়ার ঘাস চাষ করে নিজের গবাদি পশুর খাদ্য চাহিদা মিটিয়ে তা বিক্রি করে জীবিকা নির্বাহ করছেন অনেকে কৃষক। কৃষকেরা বলছেন, সার-তেলসহ কৃষি পণ্যের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় অন্যান্য ফসল চাষাবাদে উৎপাদন খরচই যেখানে উঠছে না সেখানে নেপিয়ার ঘাস চাষে খরচ কম ও লাভ বেশি হওয়াই এ ঘাস চাষ করছেন তারা।

বাগজানা ইউনিয়নের খোর্দ্দা গ্রামের স্বমেন্দ্রনাথ সাহা, উজ্জ্বল সাহা, নুপুর মহন্ত। রামচন্দ্রপুর গ্রামের নিখিল মহন্ত, সুজিত মহন্ত, কুটাহারা গ্রামের মতি আকন্দ এলাকায় সর্বাধিক ঘাস চাষ করে থাকেন। পাঁচবিবির আটটি ইউনিয়নেই এই ঘাস চাষ ছড়িয়ে পড়েছে। বাগজানা বাজারে এক মুঠো আকারের প্রতি আঁটি ঘাস ১০ টাকা করে বিক্রি হয়। ১০০ আঁটি ঘাস ১০০০ টাকায় বিক্রি করেন কৃষকরা। একটি জমি থেকে প্রতিবারে ১০০০ আঁটি করে একটানা ৭-৮ বার ঘাস পাওয়া যায়। অর্থাৎ মোট ৭০-৮০ হাজার টাকার ঘাস পাওয়া যায় প্রতি বিঘায়। আর এর পেছনে খরচ হয় ২৫-৩০ হাজার টাকায়।

উপজেলার বাগজানা গ্রামের রাঞ্জন মহন্তের সাথে কথা বলে জানা যায়, প্রতি বিঘায় পর্যায়ক্রমের ইউরিয়া, ড্যাপ, গোবর সার ও ভিটামিন প্রয়োগ করতে হয়। তবেই ভাল ঘাস পাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। অন্যান্য আবাদের তুলনায় ঘাসের চাষে খরচ কম ও লাভ বেশি হওয়ায় কৃষকরা ঘাস চাষে অধিক আগ্রহী হচ্ছেন।

২০১১ সালের ২৩ শে ডিসেম্বর, জাপানী নাগরিক হোসিও কোনিও বাংলাদেশের রংপুর জেলার কাউনিয়ার কচু আলুটারি নামক গ্রামে আসেন ও সেখানে গরুর খাদ্য হিসেবে এই ঘাসের আবাদ শুরু করেন। এরই দেখাদেখি সারা দেশে ছড়িয়ে পরে গরুর খাদ্য এই ঘাস। উপজেলার প্রত্যেক বাড়িতেই ছোট বড় একটি করে খামার আছে। বর্ষাকালে এখানে প্রচুর গো-খাদ্যের সংকট দেখা যায়। গো-খাদ্যের জন্য ধানের খর প্রতি আঁটি বিক্রি হচ্ছে অনেক উচ্চ মূল্যে, এমন সময় এই নেপিয়ার ঘাস না থাকলে খামারিরা বিপাকে পড়ে যেতেন।

নেপিয়ার ঘাসের চাহিদা বৃদ্ধি পাওয়ায় ব্যবসায়ীরাও পাইকারি দরে কৃষকদের কাছ থেকে ঘাস কিনে বিভিন্ন জেলায় বিক্রি করছেন। 

প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা নেওয়াজ কাযমির বলেন, এ উপজেলায় দিন দিন নেপিয়ার ঘাসের চাহিদা বৃদ্ধি পাওয়াই প্রতিবছর উন্নত জাতের ঘাস চাষে চাষিদের উদ্বুদ্ধের পাশাপাশি বিভিন্ন পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।’

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়