আদমদীঘিতে ছিনতাই ঘটনায় ১২ জনের বিরুদ্ধে মামলা

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২২, ২০২২, ০৩:৪৫ দুপুর
আপডেট: সেপ্টেম্বর ২২, ২০২২, ০৩:৪৫ দুপুর
আমাদেরকে ফলো করুন

সান্তাহার (বগুড়া) প্রতিনিধি : বগুড়ার আদমদীঘিতে গার্মেন্টস ব্যবসায়ী দুই সহোদর ভাইয়ের পথরোধ করে ছিনতাইয়ের ঘটনায় ১২ জনের নাম উল্লেখ করে জেলার জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এ ঘটনায় উপজেলার লক্ষীপুর গ্রামের বাসিন্দা ও ভুক্তভোগী গার্মেন্টস ব্যবসায়ী তাজুল ইসলাম বাদি হয়ে মামলাটি করেন। আদালতের বিচারক মামলাটি আমলে নিয়ে বগুড়া পিবিআইকে তদন্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন বলে বৃহস্পতিবার দুপুরে বাদির আইনজীবী রুহুল আমীন বাবু বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। মামলার আসামিরা হলো উপজেলার নসরতপুর ইউপির লক্ষীপুর গ্রামের ইমরান (২১), সাগর (২৫), শাহীন (৩৫), মোহন (১৯), দোস (২৬), মতিউর (৩৮), আজিজার (৫৫), বকুল (৪৫), ফরিদুল (৩৮), মেহেদী (২২), মহসিন (৩২) ও মকছেদ আলী (৪২)।

মামলা সূত্রে জানা যায়, মামলার বাদি তাজুলের উপজেলার নসরতপুর বাজার এলাকায় চয়েস গার্মেন্টস নামের একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। প্রতিদিনের মতো গত ১১ সেপ্টেম্বর রাত সাড়ে ৮টায় তিনি ও তার ছোট ভাই রাজু ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে বাড়ি ফিরছিলেন। এসময় লক্ষীপুর গ্রামের জনৈক বাবুর বাড়ির সামনে তারা পৌঁছামাত্র পূর্বপরিকল্পিতভাবে বাদির ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের পুঁজির ৩৫ হাজার টাকা, তাদের কাছে থাকা ৩৮ হাজার টাকা মূল্যের দু’টি স্মার্টফোন ছিনিয়ে নেয় এবং আসামিরা দেশীয় অস্ত্র দিয়ে মারপিট করে তাদের গুরুতর জখম করে। বাদির ভাই রাজুর অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় আসামিরা সেখান থেকে পালিয়ে যায়। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করায়। এরপর সোমবার তাজুল বাদি হয়ে ১২ জনের নাম উল্লেখ করে আদালতে মামলাটি দায়ের করেন। 

মামলার আসামি শাহীন বলেন, আমি সেদিন এলাকাতেই ছিলাম না। উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে আমাকে আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

আদমদীঘি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রেজাউল করিম রেজা জানান, ঘটনা শুনেছি। তবে এ বিয়ষে থানায় কেউ মামলা বা লিখিত অভিযোগ দায়ের করেননি।  

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়