শারীরিক প্রতিবন্ধকতাকে জয় করা বগুড়ার মেয়ে মহুয়া আর নেই

প্রকাশিত: আগস্ট ১৪, ২০২২, ০৫:৩৭ বিকাল
আপডেট: আগস্ট ১৪, ২০২২, ০৬:০১ বিকাল
আমাদেরকে ফলো করুন

স্টাফ রিপোর্টার : শারীরিক প্রতিবন্ধকতাকে জয় করা বগুড়ার সেই মেয়ে জান্নাতুল ফেরদৌস মহুয়া (২৭) আর নেই। আজ রোববার দুপুর ১টার দিকে বগুড়ার শেরপুর উপজেলার সোন্কা বাজার সংলগ্ন চন্ডিপুর গ্রামে ইন্তেকাল করেছেন। (ইন্নালিল্লাহে.....রাজিউন)।

মহুয়ার পারিবারিক সূত্র জানায়, প্রায় এক বছর থেকে মহুয়া শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। গত কয়েকদিন থেকে হঠাৎ শ্বাসকষ্ট বেড়ে গতকাল রোববার দুপুর ১টার দিকে মারা যায়। মহুয়ার মরদেহ আজ বিকেলে তার দাদার বাড়ি পাবনার কাশিনাথপুরে নিয়ে যাওয়া হয়। কাশীনাথপুরের শহীদনগর গ্রামে মহুয়ার বাবার কবরের পাশেই তার দাফন সম্পন্ন হবে।

মহুয়ার সেজো মামী সারজিনা আকতার জানান, তিন ভাই-বোনের মধ্যে মহুয়া সবার ছোট ছিল। বড় ভাই গোলাম মোস্তফা ড্যাফোডিল ইউনির্ভাসিটিতে শিক্ষকতা করেন এবং ছোট ভাই মোহাম্মদ আলী একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ছিলেন। করোনার সময় চাকরি চলে যাওয়ায় এখন তেমন কিছু করেন না। মহুয়ার বাবা উত্তরা ব্যাংক বগুড়া শাখার সিনিয়র অফিসার ছিলেন এবং মা সাহেরা বেগম গৃহিণী।

জান্নাতুল ফেরদৌস মহুয়া বগুড়ার সরকারি আজিজুল হক কলেজ থেকে ইংরেজি সাহিত্যে মাস্টার্স করছেন। মহুয়া অনলাইনে ঐতিহ্যবাহী মসলিন ও খাদি কাপড় দিয়ে তৈরি নানা রকমের পোশাক তৈরি করে বিক্রি করছেন। প্রশংসাও কুড়িয়েছেন, তার ঝুলিতে যোগ হয়েছে বেশ কিছু অ্যাওয়ার্ডও। 

অনলাইনে ব্যবসা করে মহুয়া হয়েছেন লাখপতি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে রয়েছে ‘Rainbow ‘রংধনু’ নামে একটি পেজ। এ পেজের মাধ্যমে তার পণ্য বিশ্বের ১৭টি দেশে যেত। সমাজের পিছিয়ে পড়া ও অবহেলিত মানুষদের জন্য কিছু করার ইচ্ছে থেকেই শারীরিক প্রতিবন্ধকতাকে জয় করে মহুয়া এসব কাজ করে গেছেন।

বগুড়া শহরের চকলোকমান খন্দকার পাড়ায় মহুয়াদের বাড়ি হলেও নিজের কাজের জন্য মহুয়া শেরপুর উপজেলার চন্ডিপুর গ্রামে ভাড়া বাড়িতে থাকতেন। বগুড়া শহরের কয়েকজন, শেরপুর উপজেলা নয়াপাড়া এলাকার কয়েকজন ও ছোনকা বাজার এলাকার বেশ কয়েকজন নারী নিয়ে মহুয়া কাজ করতেন।

সমাজের পিছিয়ে পড়া মানুষদের জন্য কাজ করতে চেয়ে মহুয়া বেশ ক’মাস আগে এক সাক্ষাতকারে দৈনিক করতোয়াকে বলেছিলেন, ‘তার ব্যবসার লাভের একটা অংশ থেকে প্রতিবন্ধী ও সমাজের পিছিয়ে পড়া মানুষদের জন্য কাজ করব। যাতে তারা পরিবারের বোঝা নয়, সম্পদ হয়ে ওঠে’। 

 জান্নাতুল ফেরদৌস মহুয়ার দৈনিক করতোয়া দেওয়া সাক্ষাতকার দেখুন এখানে: 

 

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়