লালমনিরহাটে হাফেজ রাব্বী অপহরণের ঘটনায় দুই শিক্ষক আটক

প্রকাশিত: আগস্ট ০৩, ২০২২, ০৭:৩৭ বিকাল
আপডেট: আগস্ট ০৩, ২০২২, ০৭:৩৭ বিকাল
আমাদেরকে ফলো করুন

লালমনিরহাট অফিস: লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার সিঙ্গিমারী আলিমের ডাঙ্গা মাদ্রাসার শিক্ষার্থী হাফেজ রাব্বিতুল ইসলাম রাব্বীকে অপহরণের দায়ে ওই মাদ্রাসার দুইজন শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। গতকাল মঙ্গলবার মধ্য রাতে টাঙ্গাইল থেকে শিক্ষক রবিউল ইসলাম ও রিয়াজুল ইসলামকে গ্রেফতার করে র‌্যাবের একটি দল। আজ বুধবার সকালে হাতীবান্ধা থানা পুলিশের মাধ্যমে তাদের জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

জানা গেছে, হাতীবান্ধা উপজেলার সিঙ্গিমারী আলিমের ডাঙ্গা হাফিজিয়ার মাদ্রাসার শিক্ষার্থী একই গ্রামের আব্দুল রসিদের পুত্র হাফেজ রাব্বিতুল ইসলাম রাব্বী (১২)। রাব্বীর পরিবারকে না জানিয়ে তাবলীগ জামাতের কথা বলে গোপনে ওই উপজেলার ডাউয়াবাড়ী ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডে সোহাগরে বাজার এলাকায় নিয়ে যায় ওই মাদ্রাসার শিক্ষক রবিউল ইসলাম ও রিয়াজুল ইসলাম। গত ৭ জুলাই তার পরিবারকে খবর দেয়া হয় রাব্বিতুল ইসলাম রাব্বী তিস্তা নদীতে গোসল করতে গিয়ে নিখোঁজ হয়েছে। কিন্তু রাব্বীর পিতা আব্দুল রসিদের দাবি, নদীতে গোসলের নামে নিখোঁজের নাটক তৈরি করেছেন ওই মাদ্রাসার শিক্ষক রবিউল ইসলাম ও রিয়াজুল ইসলাম। তার দাবি, রাব্বীকে ভিন্ন কোনো কারণে তাকে অপহরণ করে গুম বা পাচার করা হয়েছে।

এ ঘটনায় ১৭ জুলাই সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ও আমলী আদালত-৪ লালমনিরহাটে মামলা দায়ের করে রাব্বীর বাবা আব্দুর রসিদ। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে আসামিদের গ্রেফতারের নির্দেশ দিলেও ওই মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা হাতীবান্ধা থানার উপ-পরিদর্শক আব্দুল হালিম আসামিদের গ্রেফতারে নাটকীয়তা শুরু করেন। পরে রাব্বীর পরিবার র‌্যাবের সহযোগিতা কামনা করলে কয়েক দিন চেষ্টার পর র‌্যাবের একটি দল অভিযুক্ত ওই দুই শিক্ষককে টাঙ্গাইল থেকে গ্রেফতার করে।

হাতীবান্ধা থানার ওসি শাহ আলম জানান, র‌্যাব ওই দুই শিক্ষককে গ্রেফতারের পর আমাদের থানায় সোপর্দ করে। এরপর ওই দুই শিক্ষককে আদালতে সোপর্দ করলে তাদেরকে জেলহাজতে প্রেরণ করে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়