১৯ মাসে ট্রেনে কাটা পড়ে নিহত অর্ধশত

বগুড়ায় ৫২টি রেলক্রসিংয়ের মধ্যে ১৫টি অবৈধ, ১০টিতে নেই গেইটম্যান

প্রকাশিত: আগস্ট ০৩, ২০২২, ০৭:২২ বিকাল
আপডেট: আগস্ট ০৩, ২০২২, ০৭:২২ বিকাল
আমাদেরকে ফলো করুন

মাসুদুর রহমান রানা: নিরাপদ নয় বগুড়ার বহু রেল ক্রসিং। এ সব রেল ক্রসিং এ দুর্ঘটনা ঘটছে প্রতিনিয়ত। রেল ক্রসিং পার হতে গিয়ে ট্রেনের নিচে যানবাহন সমেত চাপা পড়ে অথবা ট্রেনের ধাক্কায় ও কাটা পড়ে বগুড়ায় প্রাণহানির ঘটনা বাড়ছে।

বগুড়া রেলস্টেশন মাস্টার মো: সাজেদুর রহমান সাজু জানান, বগুড়ার সোনাতলা থেকে সান্তাহার পর্যন্ত ৭০ কিলোমিটার রেলপথে মোট বগুড়ায় ৫২টি রেল ক্রসিং রয়েছে। এর মধ্যে ২৭টি বৈধ। এগুলোতে গেইটম্যান রয়েছে। আর বাকিগুলো অরক্ষিত। ১৫টি রেলক্রসিং পুরোপুরি অবৈধ। ১০টিতে কোন গেইটম্যানই নেই। তবে এই ১০টি রেল ক্রসিংএ সর্তকবাণী লেখা আছে। সতর্কবাণীতে নিজ দায়িত্বে রেল লাইন পার হতে বলা হয়েছে। ‘কোন দুর্ঘটনা ঘটলে এ জন্য রেল কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়’ বলেও উল্লেখ করা হয়েছে। তারপরও মাঝে-মধ্যে রেলক্রসিংএ দুর্ঘটনা ঘটছে। লোকবলের অভাবে সবগুলো রেলক্রসিংয়ে গেইটম্যান দেয়া যাচ্ছে না।

তিনি আরও বলেন, শহরের জামিলনগরের অদূরে সরকারি আজিজুল হক কলেজের সামনে, পুরান বগুড়ায়, ফাঁপোড়, কইচড়, উত্তর চেলোপাড়া, সাফি ক্লিনিকের কাছে, সাবগ্রাম, চেলোপাড়া চাষীবাজার, আশ্রম রোড, গাবতলী, সন্ধ্যাবাড়ি, নারুয়ামালা ব্রীজ, গাবতলী কাঁশবন, কাহালু, সান্তাহার ও সোনাতলার বিভিন্ন স্থানে অবৈধ রেলক্রসিংগুলো রয়েছে। রেললাইনের পাশে বাড়ি, প্রতিষ্ঠান বা স্কুল-কলেজ থাকায় প্রভাবশালিরা অবৈধভাবে ঝুঁকিপূর্ণ রেলক্রসিং নির্মাণ করে সুবিধা নিচ্ছে। তবে এই অবৈধ রেলক্রসিংগুলো বন্ধ করে দিতে রেলের ঊর্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে স্থানীয় রেলের কর্মকর্তরা আবেদন জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে বগুড়া রেলস্টেশন ফাঁড়ির ইনচার্জ মো: আমিনুল ইসলাম বলেন, বগুড়া, সোনাতলা, সান্তাহার, জয়পুরহাট এলাকায় বিভিন্ন রেল স্টেশন এলাকায় গত ১৯ মাসে মোট ৭১ জনের অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে গত বছর ২০২১ সালে ৩৮ জন এবং চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে জুলাই মাস পর্যন্ত ৭ মাসে আরও ৩৩ জনের অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে ৭০ শতাংশই মারা গেছে রেলক্রসিং পার হতে গিয়ে ট্রেনের নিচে গাড়ি সমেত চাপা পড়ে, ট্রেনে কাটা পড়ে, অথবা ট্রেনের ধাক্কায়। এছাড়া কেউ কেউ আবার রেল লাইনে পাশ দিয়ে হেঁটে হেঁটে মোবাইল ফোনে কথা বলতে গিয়েও মারা গেছেন। আবার কেউ কেউ ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যাও করেছেন। এসব মৃত্যু’র ঘটনায় অস্বাভাবিক মৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়