মাকে দেখতে যাওয়া হলো না চিকিৎসকের, পথেই স্ত্রী-সন্তানসহ মৃত্যু

প্রকাশিত: মে ১৪, ২০২২, ০৩:৪৪ দুপুর
আপডেট: মে ১৪, ২০২২, ০৩:৪৪ দুপুর
আমাদেরকে ফলো করুন

অসুস্থ মাকে দেখতে স্ত্রী-সন্তানসহ প্রাইভেটকারে করে বাড়ি যাচ্ছিলেন রাজধানীর বারডেম হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. বাসুদেব সাহা। কিন্তু বাড়ি থেকে মাত্র ৩০ মিনিটের পথ দূরে থাকতে বাসের সঙ্গে তাদের প্রাইভেটকারের সংঘর্ষ হয়। তাতে প্রাইভেটকারে থাকা ডা. বাসুদেব, তার স্ত্রী ও ছেলে মারা গেছেন। তবে পরিবারের সঙ্গে গোপালগঞ্জ না যাওয়ায় ডা. বাসুদেবের একমাত্র কন্যা বেঁচে গেছেন বলে জানা গেছে।

শনিবার (১৪ মে) বেলা ১১টার দিকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে কাশিয়ানী উপজেলার ফুকরা ইউনিয়নের দক্ষিণ ফুকরা এলাকায় বাস-প্রাইভেটকারের সংঘর্ষে মোট আট জন নিহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে ডা. বাসুদেব ও তার স্ত্রী-সন্তান রয়েছেন।

বারডেম হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, অসুস্থ মাকে দেখতে বাড়ি যাচ্ছিলেন ডা. বাসুদেব। কিন্তু বাড়িতে পৌঁছানোর মাত্র আধা ঘণ্টা আগে দুর্ঘটনায় পড়ে তিনি পাড়ি জমালেন না ফেরার দেশে।

বাড়ি যাওয়ার পথে দুর্ঘটনার চার ঘণ্টা আগে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে ফেরিতে দাঁড়ানো একটি ছবি পোস্ট করেছিলেন তিনি। কিন্তু দুর্ঘটনায় তার আর ‘প্রাণ’ নিয়ে বাড়ি যাওয়া হলো না।

ডা. বাসুদেব সাহা চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের ৩১তম ব্যাচের শিক্ষার্থী ছিলেন। তিনি বারডেম হাসপাতালের এনেসথেসিয়া বিভাগে কর্মরত ছিলেন।

দুর্ঘটনা প্রসঙ্গে গোপালগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের উপসহকারী পরিচালক (চ. দা.) মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ ঢাকা পোস্টকে বলেন, বাস-প্রাইভেটকারের সংঘর্ষে মোট আট জন নিহত হয়েছেন। এ সময় একটি মোটরসাইকেলও দুর্ঘটনায় পড়ে। ২৫ জনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে কাশিয়ানী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়