উদ্বোধনের আর মাত্র
০০
দিন
০০
ঘণ্টা
০০
মিনিট
০০
সেকেন্ড

রংপুরে জাল টাকার ব্যবসা এএসআইয়ের জামিন নামঞ্জুর

প্রকাশিত: জুন ২১, ২০২২, ০৮:১৯ রাত
আপডেট: জুন ২১, ২০২২, ০৮:১৯ রাত
আমাদেরকে ফলো করুন

রংপুর প্রতিনিধি: রংপুরে এএসআই আমিনের জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করে জেলহাজতে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত। আজ মঙ্গলবার দুপুরে রংপুরের জেলা ও দায়রা জজ শহিদুল ইসলাম এই আদেশ দেন। পরে তাকে রংপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, এএসআই আল আমিন বর্তমানে ঢাকা মেট্রোপলিটান পুলিশে কর্মরত রয়েছেন। রংপুরে ট্রাফিক বিভাগে কর্মরত অবস্থায় জাল টাকা ব্যবসার সাথে জড়িত হয়ে পড়েন তিনি। গত বছরের ৫ জুলাই পূর্ব পরিচয়ের সূত্র ধরে আল আমিন তার দুইবন্ধু রংপুর নগরীর নিউ ইঞ্জিনিয়ার পাড়ার জিসান ও মুলাটোল এলাকার সোহানকে রংপুর নগরীর সোডাপীর এলাকায় একটি হোটেলে ফোন করে ডেকে আনেন। এরপর সেখানে তার পকেট থেকে ৫শ’ টাকার এক বান্ডিল জাল নোট দেখিয়ে বলেন, এসব চালাতে পারলে অর্ধেক দাম দিলেই চলবে। তারা টাকা নিতে অস্বীকার করলে অনেকটা জোর করে ৫টি ৫শ’ টাকার জাল নোট তাদের দিয়ে আল আমিন বলেন, চেষ্টা করে দেখতে চালানো যায় কিনা। এ ঘটনার পর দুই বন্ধু মিঠাপুকুর যান। রাতে বাসায় ফেরার পথে নগরীর দমদমা এলাকায় পুলিশ তাদের মোটরসাইকেল আটক করে তল্লাশি করে ৫টি জাল ৫শ’ টাকার নোট পান। এরপর তাদের নগরীর তাজহাট থানায় নিয়ে এসে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে তারা বলেন, ট্রাফিক পুলিশের এএসআই আল আমিন তাদের এসব টাকা চালাতে বলেছে। পরে এ ঘটনায় তাজহাট থানার এসআই আসাদুল বাদি হয়ে জিসান, সোহান ও এএসআই আল আমিনের নাম উল্লেখ করে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা করেন। আসামি জিসান ও সোহান আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকরোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। স্বীকারোক্তিতে জাল টাকা এএসআই আল আমিন তাদের দিয়েছে বলে জানায়। পরে পুলিশ তদন্ত শেষে এএসআই আল আমিনসহ তিনজনের বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইনে অভিযোগ দাখিল করেন। ১৯ জুন এএসআই আল আমিন আত্মসর্মপণ করলে তাকে জেলহাজাতে পাঠানো নির্দেশ দেন আদালত। মঙ্গলবার তিনি আদালতে হাজির হয়ে জামিনের আবেদন করলে বিচারক তার জামিন নামঞ্জুর করে আবার কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

এ ব্যাপারে সরকার পক্ষের আইজীবী পিপি আব্দুল মালেক জানান, পুলিশের এএসআই জাল টাকা ব্যবসার মামলার প্রধান আসামি, তার বিরুদ্ধে তদন্ত শেষে পুলিশ আদালতে চার্জসীট দাখিল করেছে। বিচারক সবকিছু বিচার বিশ্লেষণ করে তার জামিন নামঞ্জুর করেছেন।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক করতোয়া এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়